মেয়েদের আই লিগে নজির, লাল-হলুদ জার্সিতে মাঠে নামবেন পদ্মাপাড়ের সানজিদা

author img

By ETV Bharat Bangla Desk

Published : Jan 25, 2024, 4:42 PM IST

ETV Bharat

Bangladesh Footballer in East Bengal Football Team: দেশের মাটিতে খেলবেন বাংলাদেশের খেলোয়াড় ৷ ইস্টবেঙ্গল তাদের মহিলা ফুটবল দলের জন্য বাংলাদেশের সানজিদা আক্তারকে নিলেন ৷

কলকাতা, 25 জানুয়ারি: মহিলাদের জাতীয় লিগে অংশগ্রহণকারী অন্য দলগুলি ইতিমধ্যে বিদেশি ফুটবলার নিয়ে দল সাজিয়েছে ৷ বেশিরভাগ দলেই আফ্রিকান ফুটবলারদের দাপট ৷ এবার মহিলাদের জাতীয় লিগে ভালো ফল করার উদ্দেশ্যে ইস্টবেঙ্গলও বিদেশি ফুটবলার নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল ৷ তবে আফ্রিকা মহাদেশের নয়, বাংলাদেশ থেকে ফুটবলার নিল ইস্টবেঙ্গল ৷

ক্লাবের মহিলা ফুটবল টিমের ইতিহাসে সর্বপ্রথম বিদেশি খেলোয়াড় হিসেবে যোগ দিলেন বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা ফুটবল দলের খেলোয়াড় সানজিদা আক্তার ৷ 22 বছর বয়সি অ্যাটকিং মিডফিল্ডার সানজিদা বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা ফুটবল দলের বয়স ভিত্তিক সব বিভাগের প্রতিনিধিত্ব করেছেন ৷ অনূর্ধ্ব 14, 16, 18, 19 বিভাগে ওপার বাংলার জাতীয় দলের হয়ে খেলেছেন সানজিদা ৷ 2022 সালে সাফ ওমেনস চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ ৷ সেই জয়ে সানজিদার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল ৷

বাংলাদেশের ময়মনসিংহের ধোবাউরাতে জন্ম সানজিদার ৷ সেখানকার কালিসিন্দুর গভর্মেন্ট প্রাইমারি স্কুলের হয়ে তাঁর ফুটবল খেলা শুরু ৷ পরে তিনি খেলেছেন বসুন্ধরা কিংসের হয়ে ৷ বাংলাদেশের ময়মনসিংহের মেয়ে সানজিদার সঙ্গে ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের যোগাযোগ বহু পুরনো ৷

বহু বিখ্যাত ফুটবলার লাল-হলুদ জার্সিতে খেলে গিয়েছেন ৷ মণিভূষণ (ভানু) দত্ত রায় ছিলেন ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের দ্বিতীয় অধিনায়ক ৷ ময়মনসিংয়ের ডিফেন্ডার 1921 থেকে 1934 সাল পর্যন্ত একটানা 14 বছর ইস্টবেঙ্গল ক্লাবে খেলেছেন ৷ রাখাল মজুমদারের নেতৃত্বে ইস্টবেঙ্গল ক্লাব প্রথমবারে শিল্ড চ্যাম্পিয়ন হয় 1943 সালে ৷ ময়মনসিংয়ে এই ডিফেন্ডার 1937-1951 সাল একটানা 15 বছর ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের প্রতিনিধিত্ব করেছেন ৷

ভূপেন্দ্রমোহন সেনগুপ্ত ওরফে পাখি সেন ময়মনসিংয়ের মানুষ ৷ 1937 সালে ইস্টবেঙ্গল ক্লাবে খেলেন তিনি ৷ পরবর্তী সময়ে রেলের চাকরিতে যোগ দেওয়ায় আর ইস্টবেঙ্গলের হয়ে খেলতে পারেননি ৷ 1937-এ ইস্টবেঙ্গলে থাকার সময় ঢাকাতে অপ্রতিরোধ্য ইংল্যান্ডের ইসলিংটন কোরিন্থিয়ান টিমকে ঢাকা একাদশ 1-0 গোলে পরাজিত করে ৷ সেই ম্যাচের একমাত্র গোলটি ছিল পাখি সেনের ৷ এই দলটি তাদের ভারত সফরে 31টি ম্যাচের মধ্যে 25টিতে জয়ী হয় ৷ অমীমাংসিত থাকে 5টি ম্যাচ ৷ আর একটি ম্যাচে তারা পরাজিত হয় ৷

কলকাতা উয়াড়ি ক্লাবের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ছিলেন পাখি সেন ৷ স্বাধীনতার পরেও ইস্টবেঙ্গল ক্লাবে নিয়মিত ব্যবধানে বাংলাদেশের ফুটবলাররা খেলেছেন ৷ 1986 সালে খন্দকার ওয়াসিম ইকবাল, 1991 ও 1993 সালে মোনেম মুন্না, 1991 সালে রিজভী করিম রুমি, গোলাম মোহাম্মদ ঘাউস ও শেখ মোহাম্মদ আসলাম, 1995 সালে রাকিব হোসেন ও মিনাজুর রহমান ৷ এবার সেই তালিকায় যোগ হলেন সানজিদা আখতার ৷

আরও পড়ুন:

  1. এশিয়ান কাপে হারের হ্যাটট্রিক, সিরিয়ার কাছে বিধ্বস্ত হয়ে লজ্জার বিদায় ভারতের
  2. নিজামের শহরে প্রথম ব্যাটিং ইংল্যান্ডের, বিরাটের বদলি ভরত
  3. অনবদ্য হিজাজি, পেনাল্টি নষ্ট ক্লেইটনের; সুপার কাপের ফাইনালে ইস্টবেঙ্গল
ETV Bharat Logo

Copyright © 2024 Ushodaya Enterprises Pvt. Ltd., All Rights Reserved.