নারীর শাড়ি-আবেগ ছুঁতে দরিদ্রদের বিনামূল্যে সিল্ক, ভোটের মুখে মমতা-শিবরাজের পথে শিন্ডে

author img

By ETV Bharat Bangla Desk

Published : Jan 31, 2024, 6:19 PM IST

Free Saree Scheme

Free Saree Scheme: রাজ্যে দারিদ্র্যসীমার নীচে থাকা মহিলাদের জন্য ভোটের মুখে বিনামূল্যে শাড়ি প্রকল্প চালু করল মহারাষ্ট্র সরকার ৷ কতজন পাবে এই শাড়ি ? কী শাড়ি দেওয়া হবে ? বিস্তারিত জানতে প্রতিবেদনটি পড়ুন ৷

মুম্বই, 31 জানুয়ারি: পশ্চিমবঙ্গে লক্ষ্মীর ভান্ডার, মধ্যপ্রদেশে লাডলি বেহনা যোজনা - মহিলাদের মন ছোঁয়া প্রকল্প এনে ভোটবাক্সে বাজিমাৎ করেছিল এই দুই রাজ্যের শাসকদল ৷ আসন্ন লোকসভা ও বিধানসভা নির্বাচনে এই ট্রাম্প কার্ডকেই এ বার কাজে লাগাতে চাইছে মহারাষ্ট্র সরকার ৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও শিবরাজ সিং চৌহানের সরকার প্রতি মাসে মহিলাদের অ্যাকাউন্টে কিছু টাকা জমা করে নারীদের কাছে টেনেছিলেন ৷ সেই পথই অনুসরণ করেছে মহারাষ্ট্র ৷ তবে টাকা দিয়ে নয়, তারা পাখির চোখ করেছে নারীর শাড়ি-আবেগকে ৷

কথাতেই আছে শাড়িতে নারী ৷ শাড়ি ভারতীয় মহিলাদের মনের খুব কাছের, আবেগের ৷ ভোটবাক্সে মহিলাদের সেই আবেগকে উসকে দিতেই মহারাষ্ট্র সরকার অন্ত্যোদয় যোজনা থেকে উপকৃত দরিদ্র মহিলাদের বিনামূল্যে শাড়ি বিতরণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে । রাজ্য সরকারের বস্ত্রশিল্প বিভাগের মাধ্যমে 'পুঁজিবাজার যোজনা'-এর অধীনে অন্ত্যোদয় যোজনায় সুবিধেপ্রাপ্ত মহিলাদের বিনামূল্যে শাড়ি দেবে বলে ঠিক করে ৷ এর আওতায় রাজ্যের 24 লাখ 80 হাজার 384 জন মহিলাকে শাড়ি বিতরণ করা হবে বলে জানিয়েছেন মহারাষ্ট্রের টেক্সটাইল কর্পোরেশনের আর্থিক উপদেষ্টা ও অ্যাকাউন্টস অফিসার বিজয় পূজারি ।

এ প্রসঙ্গে পূজারি বলেন যে, রাজ্য সরকারের তরফে দরিদ্র মহিলাদের শাড়ি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে । রাজ্য সরকারের উদ্দেশ্য হল, রাজ্যে তাঁত ব্যবসার প্রচার করা এবং দরিদ্র মহিলাদের সাহায্য করা । এর মধ্যে একটি শাড়ির দাম পড়বে 355 টাকা এবং তাতে জুড়বে পাঁচ শতাংশ জিএসটি । এই শাড়িটির নাম আর্ট সিল্ক ৷ এই শাড়ি 2024 সালের 26 জানুয়ারি থেকে রাজ্যজুড়ে বিতরণ শুরু হয়েছে । ফেব্রুয়ারির শেষ বা মার্চের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে এই শাড়িগুলি প্রায় 25 লক্ষ মহিলাকে বিতরণ করা হয়ে যাবে ।

এই আওতায় জেলাভিত্তিক সুবিধাভোগীর সংখ্যা: মুম্বই 4452, থানে 59,505, পালঘর 98 হাজার 68, রত্নাগিরি 38হাজার 730, নাগপুর 1 লাখ 26 হাজার 489, অমরাবতী 1 লাখ 27 হাজার 465, আকোলা 42 হাজার 310, নান্দেদ 13 হাজার 187 জন ৷ পূজারি জানান, সম্ভাজিনগরের উপকারভোগীর সংখ্যা 66 হাজার 492, আহমেদনগর 88 হাজার 37, পারভানি 44 হাজার 469, জলগাঁও 1 লাখ 34 হাজার 926 এবং নাসিক 1 লাখ 76 হাজার 552। অন্যান্য পরিসংখ্যান অন্তর্ভুক্ত করলে মোট সংখ্যাটা হয় প্রায় 25 লাখ ।

আরও পড়ুন:

  1. মধ্যপ্রদেশে বিজেপির তুখোড় ব্যাটিং, ম্যাজিক দেখাল 'লাডলি বেহেনা'!
  2. মাতৃ ভাণ্ডারেই লক্ষ্মীলাভ ! ক্ষমতায় এলে প্রত্যেককে 3 হাজার টাকা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি বিজেপির
  3. 1.5 কোটি মানুষ লক্ষ্মীর ভান্ডারের সুবিধা পাচ্ছেন: মমতা
ETV Bharat Logo

Copyright © 2024 Ushodaya Enterprises Pvt. Ltd., All Rights Reserved.