টোটোর দৌরাত্ম্যে খোয়া যেতে পারে ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ তকমা, আশঙ্কায় শান্তিনিকেতন

author img

By ETV Bharat Bangla Desk

Published : Jan 29, 2024, 6:12 PM IST

Etv Bharat

World Heritage Santiniketan: ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ তকমা পেয়েছে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের শান্তিনিকেতন। ঐতিহ্যবাহী উপাসনা গৃহ থেকে কালিসায়র পর্যন্ত রাস্তা বিশ্বভারতীকে দিয়েছিল রাজ্য সরকার ৷ সম্প্রতি সেই রাস্তাটি ফিরিয়ে নিয়েছে প্রাশাসন ৷ তাই সেখানেই গজিয়ে উঠেছে বেআইনি টোটো স্ট্যান্ড ৷

শান্তিনিকেতনে টোটো চালকদের দৌরাত্ম্য

বোলপুর, 29 জানুয়ারি: শান্তিনিকেতনে ঐতিহ্যবাহী উপাসনা গৃহ থেকে ছাতিমতলা-রবীন্দ্রভবনের সামনে টোটো-চার চাকা গাড়ির দৌরাত্ম্য। ফলস্বরূপ ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ তকমা হারানোর আশঙ্কা আশ্রমিক, প্রাক্তনী থেকে শুরু করে শান্তিনিকেতনবাসীর মধ্যে ৷ বিশ্বভারতীর কাছ থেকে রাজ্য সরকার এই রাস্তা নিয়ে নেওয়ার পরেই গজিয়ে উঠেছে টোটো ও গাড়ির স্ট্যান্ড। ফলে শান্তিনিকেতন থানা ও বোলপুর পৌরসভার নজরদারির অভাবে ব্যাপক যানজট ও বিশৃঙ্খলা তৈরি হচ্ছে সেখানে। স্বাভাবিকভাবেই বিঘ্নিত হচ্ছে আশ্রমের পবিত্রতা ও পরিবেশ।

টোটো চালকদের দৌরাত্ম্যের জেরে এই রাস্তায় চলাচল করাও দায় হয়ে উঠেছে ৷ এখানেই আছে ঐতিহ্যবাহী উপাসনা গৃহ, ছাতিমতলা, রবীন্দ্রভবন সংগ্রহশালা ৷ অথচ এগুলির সামনে গজিয়ে উঠেছে টোটো ও চারচাকা গাড়ির স্ট্যান্ড। প্রশাসনের কোনও নিয়ন্ত্রণ নেই ৷ শান্তিনিকেতন থানা ও বোলপুর পৌরসভার উদাসীনতায় বিঘ্নিত হচ্ছে আশ্রমের শান্তিপূর্ণ পরিবেশ ৷ যদিও টোটো চালকদের কথায়, "আমাদের কোনও স্ট্যান্ড করে দেয়নি প্রশাসন বা বিশ্বভারতী। পর্যটকদের নিয়ে দাঁড়াব কোথায় ?"

এই অভিযোগ স্বীকার করে নিয়েছে বোলপুর পৌরসভার 2 নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর চন্দন মণ্ডল ৷ এই প্রসঙ্গেই তিনি বলেন, "একথা ঠিক টোটো ও গাড়ির দৌরাত্ম্য ক্রমশই বাড়ছে। আমাদের নজরে এসেছে বিষয়টি ৷ দ্রুত সমাধান সূত্র বের করা হবে।" বিশ্বভারতীর প্রাক্তনী নূরুল হক বলেন, "টোটো-গাড়ির যা দৌরাত্ম্যে তাতে নষ্ট হচ্ছে আশ্রমের পরিবেশ ৷ এভাবে চলতে থাকলে আমরা ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ তকমা হারিয়ে ফেলব ৷ প্রশাসনের উচিৎ দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া ৷"

সদ্য ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ তকমা পেয়েছে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের শান্তিনিকেতন। এই শান্তিনিকেতনে ঐতিহ্যবাহী উপাসনা গৃহ থেকে কালিসায়র পর্যন্ত রাস্তা বিশ্বভারতীকে দিয়েছিল রাজ্য সরকার ৷ কিন্তু তৎকালীন উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী এই রাস্তা জনসাধারণের ব্যবহার নিষিদ্ধ করেছিলেন বিভিন্ন সময়ে ৷ এই অভিযোগের ভিত্তিতে রাস্তাটি বিশ্বভারতীর কাছ থেকে ফিরিয়ে নিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন:

  1. ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ শান্তিনিকেতনে নদীবক্ষে কংক্রিটের পিলার, বেদখল ঐতিহ্যবাহী কোপাই
  2. বছরের শুরুতে উৎসবের মেজাজ শান্তিনিকেতনে, উপচে পড়ল ভিড়
  3. বড়দিন উপলক্ষে শান্তিনিকেতন রঙিন, উপাসনা গৃহে ঐতিহ্যের অনুষ্ঠান
ETV Bharat Logo

Copyright © 2024 Ushodaya Enterprises Pvt. Ltd., All Rights Reserved.