বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় ওসি-কে তলব করতেই তড়িঘড়ি এফআইআর গ্রহণ হেয়ার স্ট্রিট থানার

author img

By ETV Bharat Bangla Desk

Published : Feb 9, 2024, 8:09 PM IST

Calcutta High Court

Justice Abhijit Gangopadhyay: ডেল্টা জুট মিলে ভুয়ো ডিরেক্টর নিয়োগের মাধ্যমে কর্মচারীদের প্রায় 22 কোটি টাকা না দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ৷ সেই মামলায় এফআইআর দায়েরের নির্দেশ দিয়েছিলেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় ৷ পুলিশের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের নিয়ে টালবাহানা করার অভিযোগ ওঠায় হেয়ার স্ট্রিট থানার ওসি-কে তলব করেন বিচারপতি ৷ তার পরই এফআইআর নেওয়া হয় ৷

কলকাতা, 9 ফেব্রুয়ারি: ডেল্টা জুটমিলে ভুয়ো ডিরেক্টর নিয়োগ কাণ্ডে এফআইআর না নেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল কলকাতার হেয়ার স্ট্রিট থানার । কলকাতা হাইকোর্টে ওই থানার ওসি-কে তলব করতেই তড়িঘড়ি এফআইআর গ্রহণ করা হল ।

ডেল্টা জুট মিলে ভুয়ো ডিরেক্টর নিয়োগ করে কর্মচারীদের প্রায় 22 কোটি টাকা না দেওয়ার অভিযোগে মামলা দায়ের হয়েছিল । সেই অভিযোগের ভিত্তিতে বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় বৃহস্পতিবার রাতে এসএফয়াইও-কে এফআইআর দায়ের করতে নির্দেশ দেন । শুক্রবার সেই এফআইআর দায়ের করার নির্দেশ দিয়েছিলেন তিনি ৷ কিন্তু কর্তৃপক্ষ যখন এফআইআর দায়ের করতে যায় হেয়ার স্ট্রিট থানার তরফে টালবাহানা করা হয় বলে অভিযোগ ।

এ দিন বেলা 3টের সময় বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের বেঞ্চে এই মামলার শুনানি ছিল । বিচারপতি বিষয়টি শোনার সঙ্গে সঙ্গে হেয়ার ট্রিট থানার ওসিকে তলব করেন দুপুর 3টে 25 মিনিটের মধ্যে৷ প্রয়োজনে বিচারপতি নিজের ফোন নম্বর হেয়ার স্ট্রিট থানার ওসি-কে দিতে নির্দেশ দেন রেজিস্ট্রার জেনারেলকে ।

প্রায় 4টে নাগাদ যখন ওসি আদালতে আসেন ৷ তার আগে অবশ্য এফআইআর নেয় হেয়ার স্ট্রিট থানা ৷ বিচারপতি ওসি-কে বলেন, ‘‘আমরা সবাই দরিদ্র মানুষ । জানেন তো, ডিরেক্টর মাটির বাড়িতে থাকেন । সবার তো আর দশতলা বাড়ি নেই । 21 কোটি টাকা প্রভিডেন্ট ফান্ড বকেয়া । একটু শক্ত হাতে কাজ করুন । এক্ষেত্রে আপনারা খুব ভালো কাজ করেছেন । আপনাদের কাজে আমি খুব খুশি ।’’

তিনি আরও বলেন, ‘‘আমি লক্ষ্য করেছি যেখানে রাজনৈতিক ব্যক্তি যুক্ত থাকেন না, সেখানে তিনদিনের মধ্যে অভিযোগের নিষ্পত্তি হয় । কিন্তু রাজনৈতিক ব্যক্তি যুক্ত থাকলে অনেক বেশি দিন সময় লাগে । আমি ব্যক্তিগতভাবে পুলিশের বিরুদ্ধে কিছু বলতে চাই না । পুলিশের বিরুদ্ধে আমার কোনও অভিযোগ নেই । আপনাদের কাজ না করতে দিলে আপনারা আর কী করবেন ? আপনাদের নির্বিঘ্নে কাজ করতে দিলে সাধারণ আইনশৃঙ্খলার কোনও সমস্যাই থাকে না ।’’

অন্যদিকে রিপোর্ট সময়ে দিতে না পারায় এসএফআইও-কে তীব্র ভর্ৎসনা করেন বিচারপতি । এসএফআইও অফিসাররা অযোগ্য বলেও উল্লেখ করেন । এদিকে বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় যে এফআইআর দায়ের করে তদন্ত শুরু করতে নির্দেশ দিয়েছিলেন, তার উপর স্থগিতাদেশ চেয়ে ডিভিশন বেঞ্চের দ্বারস্থ হন ডেল্টা কোম্পানির ট্রাস্টি বোর্ডের দুই সদস্য । কিন্তু ডিভিশন বেঞ্চ জানায়, যেহেতু তদন্ত শুরু হয়েছে তাই এই মুহূর্তে এই মামলার কোনও প্রয়োজন নেই । আবেদন খারিজ হয়ে যায় বিচারপতি সূর্য প্রকাশ কেশরওয়ানি ও বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের ডিভিশন বেঞ্চে ৷

আরও পড়ুন:

  1. আই অ্যাম ভেরি সরি, অ্যাডভোকেট জেনারেলের সঙ্গে নিজেই দ্বন্দ্ব মেটালেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়
  2. দেবের সিনেমা ভালো লেগেছে, 'প্রধান' দেখে আপ্লুত বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়
  3. বিচারপতি অমৃতা সিনহার স্বামীকে সিআইডি তলব, এবার মুখ খুললেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়
ETV Bharat Logo

Copyright © 2024 Ushodaya Enterprises Pvt. Ltd., All Rights Reserved.