সন্দেশখালি কোনওদিনই নিয়ন্ত্রণে ছিল না, পুলিশকে তোপ দিলীপের

author img

By ETV Bharat Bangla Team

Published : Feb 24, 2024, 5:20 PM IST

BJP MP Dilip Ghosh

Dilip Ghosh: সন্দেশখালি নিয়ে ফের সরব হলেন বিজেপি সাংসদ দিলীপ ঘোষ ৷ সেখানকার আইন-শৃঙ্খলা নিয়ে পুলিশকে তোপ দেগেছেন তিনি ৷ তাঁর কথায়, সন্দেশখালি কোনোদিনই পুলিশের নিয়ন্ত্রণে ছিল না ৷

সন্দেশখালি নিয়ে পুলিশকে তোপ দিলীপের

নিউটাউন, 24 ফেব্রুয়ারি: সন্দেশখালির আইন-শৃঙ্খলা নিয়ে রাজ্য পুলিশকে তীব্র আক্রমণ শানালেন বিজেপি সাংসদ দিলীপ ঘোষ ৷ শনিবার ইকোপার্কের বাইরে দাঁড়িয়ে সন্দেশখালিতে পুলিশের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে তিনি বলেন, "ওই জায়গা কোনওদিন নিয়ন্ত্রণে ছিলই না। আজ পুলিশ আধিকারিক এবং তৃণমূলের নেতারা যাচ্ছেন। বছরের পর বছর ওখানে অত্যাচার হয়েছে । কেউ খোঁজ নিতে গিয়েছিলেন? আজ মানুষের পিঠ দেওয়ালে ঠেকে গিয়েছে । তারা রাস্তায় নেমেছেন।"

তিনি আরও বলেন, "রাজীব কুমার গিয়ে বলছেন, আটদিনে পরিস্থিতি ঠিক করে দেব । এরকম কত আটদিন চলে গিয়েছে । এতদিন পরিস্থিতি ঠিক করেননি কেন? কোথায় ছিলেন? দিনের পর দিন ধর্ষণ অত্যাচার হয়েছে । থানায় গিয়ে ফিরে এসেছেন অভিযোগকারীরা । অভিযোগ নেওয়া হয়নি । পঞ্চায়েতে ভোট লুঠ হয়েছে। ভেরি দখল হয়েছে। পুলিশ অভিযোগকারীদের থানা থেকে তাড়িয়ে দিয়েছে । রাজ্যে সন্দেশখালির মতো এরকম বহু জায়গা আছে।"

সন্দেশখালি কি দ্বিতীয় নন্দীগ্রাম? এই প্রশ্নের জবাবে বিজেপি নেতার বক্তব্য, "নন্দীগ্রাম একটা গেম চেঞ্জার ছিল । সন্দেশখালি দেখেও বহু মানুষ প্রতিবাদের ভাষা খুঁজে পাবেন। নন্দীগ্রামের মতো পরিস্থিতি অনেক জায়গায় তৈরি হবে । সাধারণ মানুষ নিজের হাতে ঝান্ডা তুলে প্রতিবাদের ভাষা খুঁজে নিচ্ছেন । তারা এখন কোনও দলকেও খুব একটা গুরুত্ব দিচ্ছেন না । মানুষকে নিজের রাস্তা নিজেই খুঁজে নিতে হচ্ছে ।"

গত কয়েকদিন ধরে একের পর এক বিজেপি নেতা সন্দেশখালি মুখো হয়েছেন ৷ বারবার বিজেপি নেতারা সেখানে যাচ্ছেন কেন ? এই নিয়ে দিলীপ ঘোষ বলেন, "রাজ্যে এরকম বহু এলাকা আছে যেখানে একেকজন সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের গুণ্ডাকে নেতা বানানো হয়েছে । এর মধ্যে অন্যতম শেখ শাহজাহান । দক্ষিণ এবং উত্তর 24 পরগনা, নদিয়া, মালদা ও মুর্শিদাবাদে যারা মাফিয়া ছিল তারা নেতা হয়ে গিয়েছে । তারা হাতেখড়ি করেছে সিপিএমের আমলে । পরে তৃণমূলের হাত ধরেছে ।"

তিনি বলেন, "পঞ্চায়েতের সমস্ত আসন ওদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। সব পাচারকারী, যারা গরু-কয়লা-ফেনসিডিল ও সোনা এগুলো পাচার করে । একটা লোক এমন নেই যে ঠিকঠাক আছে । তারাই তৃণমূলের কিংপিন। তারাই টাকা দেয় । তারাই ভোট করায় । তৃণমূল দলটা এদের ওপরেই দাঁড়িয়ে আছে । তাদের গায়ে হাত পড়ে না । এমন সব জায়গা যেখানে ইডি সিবিআই চট করে গিয়ে কিছু করতেও পারবে না । মানুষ বুঝেছে তাদের ধর্ম সংস্কৃতি মান সম্মান রক্ষা করতে গেলে নিজেদেরকেই রাস্তায় নামতে হবে ।"

রাজ্য পুলিশের ডিজি রাজীব কুমারের রহস্যে মোড়া মধ্যরাতের লঞ্চ সফর নিয়েও বিজেপি সাংসদ মন্তব্য করেন ৷ তাঁর কথায়, "খুঁজে বের করতে বা লোকেট করতে গিয়েছিলেন? নাকি শাহজাহানের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন? উনি নিজে কীভাবে কোর্ট এবং সিবিআইয়ের হাত থেকে লুকিয়ে ছিলেন সেই ট্রেনিং দিতে গিয়েছিলেন। শাহজাহানের গায়ে কেউ হাত দেবে না । বলেছে, ভরসা রাখুন? কোন পুলিশের ওপর মানুষ ভরসা রাখবে? জমি কেড়ে নিয়ে নোনা জল ঢুকিয়ে ভেরি করা হয়েছে। পুলিশ অভিযোগ নেয়নি। সেই পুলিশের ওপর কে ভরসা রাখবে?"

মহিলার পায়ের উপর দিয়ে পুলিশের গাড়ি চালিয়ে দেওয়ার অভিযোগ ৷ এই নিয়ে দিলীপ বলেন, "পুলিশ কী স্বীকার বা অস্বীকার করল তাতে এখন আর কিছু যায় আসে না । পুলিশকে এখন ওখানে কেউ পাত্তা দিচ্ছে না । চাকরি বাঁচাতে পুলিশকে ওখানে যেতে হচ্ছে । ওখানে পুলিশ মন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের যাওয়া উচিৎ । উনি 500 টাকা দিয়ে সমর্থন কিনে নিয়েছেন । তাহলে তো ওখানে যাওয়া উচিৎ ওনার । উনি গিয়ে বলুন, আমি আছি চিন্তা নেই । কিন্তু ওনার যাওয়ার সাহস নেই ।"

আরও পড়ুন:

  1. মমতার তৈরি করা ভস্মাসুরই তাঁকে জ্বালিয়ে গিলে খাবে, সন্দেশখালি নিয়ে কটাক্ষ দিলীপের
  2. 'আইন হাতে নিলেই কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে', সন্দেশখালিতে সতর্কবার্তা ডিজির
  3. সন্দেশখালি থানার অবস্থান থেকে টেনে-হিঁচড়ে সরিয়ে গ্রেফতার করা হল সুকান্তকে
ETV Bharat Logo

Copyright © 2024 Ushodaya Enterprises Pvt. Ltd., All Rights Reserved.