রাশিয়ান পরিবহন বিমান ইউক্রেনের কাছে ভেঙে পড়েছে, 65 ইউক্রেনীয় যুদ্ধবন্দি ছিল বলে খবর

author img

By ETV Bharat Bangla Desk

Published : Jan 24, 2024, 10:10 PM IST

Etv Bharat

Russian Transport Plane Crashes: 40 টিরও বেশি ব্যালেস্টিক, ক্রুজ, বিমান বিধ্বংসী এবং গাইডেড ক্ষেপণাস্ত্র নিযুক্ত ব্যারেজ মঙ্গলবার ভোরে তিনটি ইউক্রেনীয় শহরের 130টি আবাসিক ভবনে আঘাত করেছিল ৷ জেলেনস্কি এক্স হ্যান্ডেলে-এ লিখেছেন, "এগুলি সবই সাধারণ মানুষের বাড়ি ৷" রাশিয়ার আক্রমণ, যার মধ্যে রাজধানী কিয়েভ এবং দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর খারকিভ মূলত লক্ষ্যবস্তু ছিল ৷

মস্কো, 24 জানুয়ারি: রাশিয়ার একটি সামরিক পরিবহন বিমান 65 জন ইউক্রেনীয় যুদ্ধবন্দি, ছয় জন ক্রু এবং তাদের সঙ্গে থাকা তিনজন যাত্রী নিয়ে বুধবার সকালে ইউক্রেনের কাছে রাশিয়ার বেলগোরোড অঞ্চলে ভেঙে পড়েছে বলে জানিয়েছে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। যদিও তাৎক্ষণিকভাবে পরিষ্কার নয় যে দুর্ঘটনাটি কী কারণে ঘটেছে ৷ এদিন সকাল 11টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটেছিল ৷ এরপর কেউ বেঁচে আছে কিনা, তা জানা যায়নি।

কর্তৃপক্ষ ইতিমধ্য়েই দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধান করতে শুরু করেছে ৷ একটি বিশেষ সামরিক কমিশন দুর্ঘটনাস্থলে যাওয়ার পথে ছিল, প্রতিরক্ষা মন্ত্রক জানিয়েছে। এর আগে বুধবার, ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতি জেলেনস্কি জানিয়েছিলেন, একটি বড় রাশিয়ান ক্ষেপণাস্ত্র হামলা ইউক্রেনের বিমান প্রতিরক্ষাকে বানচাল করার পরিকল্পনা করা হয়েছিল ৷ তাতে 18 জন নিহত এবং 130 জন আহত হয়েছে। ক্রেমলিনের বাহিনীর দ্বারা পূর্ণ মাত্রায় আগ্রাসন শুরু হওয়ার পর থেকে 700 দিন অতিক্রান্ত হয়ে গিয়েছে ৷

40টিরও বেশি ব্যালেস্টিক, ক্রুজ, বিমান বিধ্বংসী এবং গাইডেড ক্ষেপণাস্ত্র নিযুক্ত ব্যারেজ মঙ্গলবার ভোরে তিনটি ইউক্রেনীয় শহরের 130টি আবাসিক ভবনে আঘাত করেছিল ৷ জেলেনস্কি এক্স হ্যান্ডেলে-এ লিখেছেন, "এগুলি সবই সাধারণ মানুষের বাড়ি ৷" রাশিয়ার আক্রমণ, যার মধ্যে রাজধানী কিয়েভ এবং দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর খারকিভ মূলত লক্ষ্যবস্তু ছিল ৷ সপ্তাহের মধ্যে সবচেয়ে ভারি ছিল এবং পশ্চিমের মিত্রদের আরও সামরিক সহায়তা প্রদানের জন্য জেলেনস্কি আবেদন করেছে ৷

জেলেনস্কি মঙ্গলবার বলেন, "এই বছর, প্রধান অগ্রাধিকার হল আমাদের শহরগুলিকে রক্ষা করার জন্য বিমান প্রতিরক্ষা শক্তিশালী করা ৷ সেইসঙ্গে ফ্রন্টলাইন অবস্থানগুলিকেও রক্ষা করা আবশ্যক ৷" এক হাজার 500-কিলোমিটার ফ্রন্ট লাইনটি বরফের আবহাওয়ার মধ্যে অনেকাংশে স্থির এবং উভয় পক্ষই তাদের অস্ত্রের মজুদ পুনরায় পূরণ করতে চাওয়ায়, যুদ্ধটি সম্প্রতি দূরপাল্লার স্ট্রাইকের উপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করেছে। বিশ্লেষকরা বলছেন যে রাশিয়া শীতকালীন বিমান হামলা চালানোর জন্য ক্ষেপণাস্ত্র মজুত করেছে, অন্যদিকে ইউক্রেন নতুন ধরনের ড্রোন দিয়ে রাশিয়ার অভ্যন্তরে হামলা চালাতে চেয়েছে ৷

আরও পড়ুন:

  1. আফগানিস্তানে 6 যাত্রী-সহ রুশ বিমান ভেঙে পড়ল, দুর্ঘটনার কারণ নিয়ে সংশয়
  2. শিকাগোয় বন্দুকবাজের হামলা, নিহত একাধিক
  3. ইজরায়েল-হামাস যুদ্ধের প্রধান শিকার নারী ও শিশুরা, প্রাণ গিয়েছে 16 হাজারের; দাবি রাষ্ট্রসংঘের
ETV Bharat Logo

Copyright © 2024 Ushodaya Enterprises Pvt. Ltd., All Rights Reserved.