অলস মেটাবলিজম ওজন বাড়াতে পারে, এই উপায়ে এটিকে বাড়িয়ে তুলতে পারেন

author img

By ETV Bharat Bangla Desk

Published : Feb 6, 2024, 6:46 AM IST

Metabolism News

Metabolism: আরও ভালো কাজ করার জন্য, আমাদের শরীরের শক্তি প্রয়োজন যা আমরা ক্যালোরি থেকে পাই । খাদ্য থেকে শক্তি তৈরির প্রক্রিয়াকে মেটাবলিজম বলে । এটি কত দ্রুত বা ধীর গতিতে ঘটে তা জীবনধারা-সহ অনেক কারণের দ্বারা প্রভাবিত হয় । জেনে নিন কোন উপায়ে আপনি আপনার মেটাবলিজম ত্বরান্বিত করতে পারেন ।

হায়দরাবাদ: দৈনন্দিন কাজের জন্য শরীরে শক্তির প্রয়োজন ৷ যা খাবারের মাধ্যমে পাওয়া যায় । এই শক্তির সাহায্যে, আমাদের শরীরের সমস্ত অঙ্গগুলি তাদের কাজগুলি আরও ভালোভাবে করতে সক্ষম হয় । আমাদের শরীর খাদ্য থেকে প্রাপ্ত ক্যালোরি পুড়িয়ে শক্তি নির্গত করে । এই রাসায়নিক বিক্রিয়াকে মেটাবলিজম বলা হয় এবং যে গতিতে এই প্রক্রিয়াটি ঘটে তাকে মেটাবলিক রেট বলে । বিপাকীয় হার বয়স, লিঙ্গ, শরীরের গঠন, চিকিৎসা পরিস্থিতি এবং জীবনধারা-সহ অনেক কারণের উপর নির্ভর করে ।

কিছু কারণে মেটাবলিক রেট কমে যায় ৷ যার কারণে ক্যালোরি ধীরে ধীরে বার্ন হয় এবং এই কারণে বেশি ক্যালোরি গ্রহণের কারণে ওজন বৃদ্ধির ঝুঁকি অন্যদের তুলনায় বেশি থাকে । অতএব, আপনার বিপাক ত্বরান্বিত করা আপনার ওজন কমানোর যাত্রায় খুব সহায়ক হতে পারে । তবে এর পাশাপাশি আরও অনেক বিষয়েরও যত্ন নেওয়া জরুরি । বিপাকের উপর বয়স এবং লিঙ্গের মতো কারণগুলির প্রভাব পরিবর্তন করা যায় না ৷ তবে আপনার জীবনযাত্রায় কিছু পরিবর্তন করে আপনি অবশ্যই এটি দ্রুততর করতে পারেন (You can definitely make it faster by making some changes)।

ক্যালোরির পরিমাণ খুব বেশি কমাবেন না: খাবার কম খেলে বা কম ক্যালোরিযুক্ত খাবার খেলে শরীরে শক্তি কম পায় । তাই ক্যালোরি বাঁচাতে মেটাবলিক রেট কমে যায় । অনেক সময় মানুষ ওজন কমানোর জন্য ক্যালোরি গ্রহণ কম করে ৷ যা বিপাকীয় হারকে প্রভাবিত করতে পারে । অতএব আপনার শরীরের স্বাভাবিক ক্রিয়াকলাপের জন্য প্রয়োজনীয় ক্যালোরি গ্রহণের পরিমাণ বজায় রাখুন । ডায়েটের শিকার হবেন না এবং একটি স্বাস্থ্যকর এবং সুষম খাদ্য অনুসরণ করুন ।

ব্যায়াম করুন: বসে থাকা জীবনযাপনের কারণে মেটাবলিজম ধীর হয়ে যায় । অতএব প্রতিদিন কিছু সময়ের জন্য অ্যারোবিক বা যে কোনও তীব্র ব্যায়াম করা বিপাকের উপর ইতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে । পেশী তৈরির জন্য ব্যায়াম করলে বেশি শক্তি লাগে । এই কারণে বিপাকীয় হার বাড়তে পারে । ব্যায়াম করার সময় মনে রাখবেন যে আপনি খুব তীব্র ব্যায়াম করবেন না ৷ যা আপনার শরীরের কোনও ক্ষতি করতে পারে ।

গ্রিন টি পান করুন: গ্রিন টি স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী । এতে অনেক ধরনের অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট পাওয়া যায় ৷ যা সুস্থ থাকতে সাহায্য করে । এছাড়াও এটি শরীরের চর্বি পোড়াতেও সাহায্য করতে পারে । অতএব প্রতিদিন গ্রিন টি পান করা বিপাককে দ্রুত করতে সাহায্য করতে পারে । তবে অতিরিক্ত পরিমাণে গ্রিন টি পান করবেন না ।

মানসিক চাপ: অতিরিক্ত মানসিক চাপের কারণে ঘুম ও খাওয়ার ধরণে ব্যাঘাত ঘটতে পারে । মানসিক চাপের সময়ে, শরীর কর্টিসল নিঃসরণ করে ৷ যা খাওয়ার ব্যাঘাত ঘটাতে পারে ৷ যা বিপাককে প্রভাবিত করে । অতএব স্ট্রেস ম্যানেজমেন্ট পদ্ধতিতে ফোকাস করুন । যোগব্যায়াম, ধ্যান এবং জার্নালিং এর মতো অনেক পদ্ধতি এটির জন্য কার্যকর হতে পারে ।

যথেষ্ট ঘুম: ঘুমের অভাব ক্ষুধার্ত হরমোন লেপটিন এবং ঘেরলিন প্রভাবিত হওয়ার কারণে ক্ষুধা বৃদ্ধি পায় । এই কারণে অতিরিক্ত খাওয়া বা দ্বৈত খাওয়ার সমস্যা হতে পারে ৷ যা বিপাককে প্রভাবিত করতে পারে । অতএব, প্রচুর পরিমাণে ঘুমান ।

আরও পড়ুন:

  1. ফ্যাটি লিভারের সমস্যা মোকাবিলায় অনেকাংশে সহায়ক এগুলি, দেখে নিন একনজরে
  2. সুস্থ থাকতে ব্রেকফাস্টে এড়িয়ে চলুন এই ধরনের খাবার
  3. শুকনো এপ্রিকট শুধু হজমের জন্যই নয়, হার্টের জন্যও উপকারী! জেনে নিন উপকারিতা

(পরামর্শগুলি শুধুমাত্র সাধারণ তথ্যের ভিত্তিতে ৷ আপনার কোনও প্রশ্ন থাকলে ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করুন)

ETV Bharat Logo

Copyright © 2024 Ushodaya Enterprises Pvt. Ltd., All Rights Reserved.