সিএএ কার্যকরের দিনক্ষণ চূড়ান্ত হয়নি, জানিয়ে দিল অমিত শাহের মন্ত্রক

author img

By ETV Bharat Bangla Desk

Published : Jan 29, 2024, 6:21 PM IST

MHA

Implementation of CAA: রবিবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী শান্তনু ঠাকুর দাবি করেছিলেন যে সাতদিনের মধ্যে সারা দেশে সিএএ লাগু হবে ৷ অথচ সোমবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে জানানো হল যে সিএএ কার্যকর করা নিয়ে এখনও কোনও নির্দিষ্ট সময়সীমা নির্ধারণ করা হয়নি ৷ প্রতিবেদনটি লিখেছেন গৌতম দেবরায় ৷

নয়াদিল্লি, 29 জানুয়ারি: সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন বা সিএএ লাগু করার জন্য কোনও নির্দিষ্ট সময় নির্ধারণ করা হয়নি ৷ সোমবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে এই কথা জানানো হয়েছে ৷ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের এক আধিকারিক বলেন, “সিএএ বাস্তবায়নের জন্য কোনও সঠিক সময়কাল নেই । তবে লোকসভা নির্বাচনের আগে যেকোনও সময় এটি কার্যকর করা হবে ।”

যদিও নৌ-পরিবহণ ও জলপথ পরিবহণ প্রতিমন্ত্রী শান্তনু ঠাকুর রবিবার পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ 24 পরগনায় একটি জনসভায় দাবি করেন যে আগামী সাতদিনের মধ্যে ভারত জুড়ে সিএএ কার্যকর করা হবে । তার পরই এই নিয়ে নতুন করে আলোচনা শুরু হয় ৷ এর প্রেক্ষিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের বক্তব্য যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ ৷

সম্প্রতি, লোকসভায় অধস্তন আইন সংক্রান্ত সংসদীয় কমিটি সিএএ লাগু করতে নিয়ম প্রণয়নের জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রককে আরও সময় মঞ্জুর করেছে ৷ এই কমিটি আগে সময়সীমা বৃদ্ধি করেছিল, তা গত 9 জানুয়ারি শেষ হয় ৷ তার পর আবার সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে সংশ্লিষ্ট কমিটির তরফে ৷ এই নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের এক আধিকারিক বলেন, "সিএএ কার্যকর না হওয়া পর্যন্ত এই ধরনের সময়সীমা বৃদ্ধি প্রয়োজনীয় ৷" তবে চলতি মাসের শুরুর দিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের একজন শীর্ষ আধিকারিক জানিয়েছিলেন যে 2019 সালে পাশ হওয়া সিএএ লাগু করার জন্য সরকার প্রস্তুত ৷ লোকসভা নির্বাচনের ঘোষণার অনেক আগেই তা কার্যকর করা হবে ৷

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের এক আধিকারিকের মতে, সবকিছু তৈরিই আছে ৷ পুরো প্রক্রিয়া অনলাইনে হবে ৷ তাই অনলাইন পোর্টালও তৈরি করা হয়ে গিয়েছে ৷ আবেদনকারীদের ঘোষণা করতে হবে যারা টুরিস্ট ভিসায় ভারতে এসেছিল ৷ তাঁদের কাছ থেকে আর কোনও নথি চাওয়া হবে না ৷

উল্লেখ্য, 2014 সালের 31 ডিসেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে ধর্মীয় কারণে চলে আসা শরণার্থীদের ভারতের নাগরিকত্ব দেওয়ার জন্যই সিএএ পাশ করানো হয় ৷ 2019 সালের 11 ডিসেম্বর সংসদে ওই আইন সংক্রান্ত বিল পাশ হয় ৷ পরদিন, 12 ডিসেম্বর রাষ্ট্রপতির সম্মতিতে তা আইনে পরিণত হয় । এর পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক বিজ্ঞপ্তি দেয় যে 2020 সালের 10 জানুয়ারি আইন কার্যকর করা হবে ৷ কিন্তু দেশজোড়া বিক্ষোভের জেরে তা ওই সময়ে কার্যকর করা হয়নি৷ কার্যকর পিছিয়ে দেওয়া হয় ৷

সংসদীয় কাজের নিয়ম অনুয়ায়ী, কোনও মন্ত্রক আইন পাশ হওয়ার ছ’মাসের মধ্যে তা কার্যকর করতে না পারে, তাহলে তা অধস্তন আইন সংক্রান্ত কমিটির কাছে পাঠাতে হয় কার্যকরের সময়সীমা বৃদ্ধি করার জন্য ৷ কেন সময়সীমা বৃদ্ধির জন্য আবেদন করা হয়েছে, তার কারণও উল্লেখ করতে হয় ৷

আরও পড়ুন:

  1. 'আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে দেশজুড়ে লাগু হবে সিএএ', দাবি কেন্দ্রীয় মন্ত্রী শান্তনু ঠাকুরের
  2. বিজেপি নেতাদের সিএএ লাগুর ঘোষণা আদতে 'কুমির ছানা' দেখানো, কটাক্ষ তৃণমূলের
  3. বিজেপির মুখে সিএএ-র কথা আসলে ভোটের রাজনীতি, দাবি মমতার
ETV Bharat Logo

Copyright © 2024 Ushodaya Enterprises Pvt. Ltd., All Rights Reserved.