নীতীশ-লালু-রামবিলাসের রাজনৈতিক গুরু, 'জননায়ক' কাপুরি ঠাকুরকে মরণোত্তর ভারত রত্ন

author img

By ETV Bharat Bangla Desk

Published : Jan 23, 2024, 10:19 PM IST

Updated : Jan 24, 2024, 6:37 AM IST

ETV Bharat

Posthumous Bharat Ratna: মৃত্যুর পর দেশের সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মানে ভূষিত করা হচ্ছে বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কাপুরি ঠাকুরকে ৷ তিনি আজীবন দলিত, দুঃস্থ, প্রান্তিক মানুষদের উন্নয়নের জন্য কাজ করেছেন ৷ নীতীশ কুমার কেন্দ্রীয় সরকারের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন ৷

নয়াদিল্লি, 23 জানুয়ারি: মরণোত্তর 'ভারত রত্ন' সম্মান দেওয়া হচ্ছে বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কাপুরি ঠাকুরকে ৷ মঙ্গলবার রাষ্ট্রপতির সচিবালয় থেকে প্রকাশিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই খবর জানানো হয়েছে ৷ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এই খবরে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন ৷ এই সম্মান দেশের সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান ৷

  • I am delighted that the Government of India has decided to confer the Bharat Ratna on the beacon of social justice, the great Jan Nayak Karpoori Thakur Ji and that too at a time when we are marking his birth centenary. This prestigious recognition is a testament to his enduring… pic.twitter.com/9fSJrZJPSP

    — Narendra Modi (@narendramodi) January 23, 2024 " class="align-text-top noRightClick twitterSection" data=" ">

সোশাল মিডিয়ায় তিনি লেখেন, "মহান জননায়ক কাপুরি ঠাকুরজিকে ভারত রত্ন সম্মান দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত সরকার ৷ এই খবরে আমি আপ্লুত ৷ আর এমন একটা সময়ে তাঁকে এই সম্মানে ভূষিত করা হচ্ছে, যখন তাঁর 100 বছর পূর্ণ হবে ৷" বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার কেন্দ্রীয় সরকারের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন ৷ সোশাল মিডিয়ায় তিনি লেখেন, "অনেক দিন ধরেই এই দাবি উঠেছিল ৷ আজ তা পূরণ হল ৷ এর জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাই ৷"

  • पूर्व मुख्यमंत्री और महान समाजवादी नेता स्व॰ कर्पूरी ठाकुर जी को देश का सर्वोच्च सम्मान ‘भारत रत्न’ दिया जाना हार्दिक प्रसन्नता का विषय है। केंद्र सरकार का यह अच्छा निर्णय है। स्व॰ कर्पूरी ठाकुर जी को उनकी 100वीं जयंती पर दिया जाने वाला यह सर्वोच्च सम्मान दलितों, वंचितों और…

    — Nitish Kumar (@NitishKumar) January 23, 2024 " class="align-text-top noRightClick twitterSection" data=" ">

1924 সালে ব্রিটিশ শাসনাধীন ভারতের বিহারের সমস্তিপুরে 'নাই' অর্থাৎ পিছিয়ে পড়া নাপিত শ্রেণির পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন কাপুরি ঠাকুর ৷ চরম দারিদ্রতার মধ্যে দিয়েই তাঁর শৈশব কেটেছে ৷ তবে পরবর্তীকালে তিনি আমজনতার নেতা হয়ে ওঠেন ৷

কাপুরি ঠাকুর 1970 সালের 22 ডিসেম্বর থেকে 1971 সালের 2 জুন পর্যন্ত বিহারের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন ৷ তিনি ভারত ছাড়ো আন্দোলনে অংশ নিয়েছিলেন ৷ স্বাধীনতা সংগ্রামী হিসেবে তিনি বহু মাস কারাবাসে কাটিয়েছেন৷ কাপুরি ঠাকুর সারা জীবন ধরে পিছিয়ে পড়া শ্রেণির জন্য কাজ করে গিয়েছেন ৷ সমাজের প্রান্তিক শ্রেণির মানুষের উন্নতির জন্য জীবন উৎসর্গ করেছেন ৷ তাই তিনি জননায়ক নামে পরিচিত ৷

1952 সালে সোশালিস্ট পার্টির হয়ে বিহারের তাজপুর বিধানসভা কেন্দ্র থেকে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন কাপুরি ঠাকুর ৷ সেবার তিনি ভোটে জয়ী হন ৷ বিহারের শিক্ষামন্ত্রীও হয়েছিলেন এই জননায়ক ৷ এমনকী বিহারের উপ-মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্বও সামলেছেন তিনি ৷ ঠাকুরই প্রথম বিহারের অ-কংগ্রেসি মুখ্যমন্ত্রী ৷

চার দশকেরও বেশি সময় ধরে তিনি বিহারের রাজনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন ৷ কাপুরি ঠাকুরের রাজনৈতিক জীবনকে তিনটি ধাপের মধ্যে দিয়ে গিয়েছে ৷ তিনি বিভিন্ন জাতির সমর্থন পেয়েছিলেন ৷ দ্বিতীয় ধাপে, তিনি নিজেকে ওবিসি নেতা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেন ৷ তবে তৃতীয় ধাপে তিনি ওবিসিদের মধ্যে একটি অংশের সমর্থন হারিয়েছিলেন ৷ কারণ তিনি সমাজের সবচেয়ে পিছিয়ে পড়া শ্রেণি, দলিত এবং দুঃস্থদের কাছে পৌঁছতে চেয়েছিলেন ৷ তাদের পাশে পেতে গিয়ে তাঁকে ওবিসির একাংশের সমর্থন হারাতে হয় ৷ মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার-সহ বিহারের তাবড় নেতা প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী লালুপ্রসাদ যাদব, প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রামবিলাস পাসওয়ানের রাজনৈতিক গুরু ছিলেন কাপুরি ঠাকুর ৷

আরও পড়ুন:

  1. বিহারে কি অব্যাহত থাকবে নীতীশ ম্যাজিক, নাকি ভালো ফল করবে বিজেপি!
  2. জেডিইউ-এর সভাপতি পদে বসলেন নীতীশ কুমার
  3. জ্যোতি বসুর পঞ্চায়েতি রাজ ও পৌর আইনের প্রশংসা নীতীশের, ভিডিয়ো বার্তা তেজস্বীরও
Last Updated :Jan 24, 2024, 6:37 AM IST
ETV Bharat Logo

Copyright © 2024 Ushodaya Enterprises Pvt. Ltd., All Rights Reserved.