বাম আমলে গৌতম দেবের সঙ্গী, তৃণমূল জমানায় বালু-ঘনিষ্ঠ, কে এই শেখ শাহজাহান ?

author img

By ETV Bharat Bangla Team

Published : Jan 5, 2024, 7:35 PM IST

Sk Shahjahan

বছর দুয়েক আগে মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরির উপর হামলার ঘটনাতেও নাম জড়িয়েছিল তৃণমূলের শেখ শাহজাহানের । এলাকায় অনেকে তাঁকে সন্দেশখালির বেতাজ বাদশা বলছেন ৷ কীভাবে উত্থান এই নেতার ?

সন্দেশখালি, 5 জানুয়ারি: শেখ শাহজাহান ! এই নামটি নিয়েই এখন শুরু হয়েছে জোর চর্চা ! এর কারণ অবশ্যই কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা ইডির আধিকারিকদের রক্তাক্ত হওয়া । তা-ও আবার শাহজাহানের মতো দোর্দণ্ডপ্রতাপ তৃণমূল নেতার ‘ডেরা’তে গিয়ে । ফলে যা হওয়ার, তাই হয়েছে ! তবে, এই ঘটনা নতুন কিছু নয় ! আগেও এই ধরনের ঘটনার সাক্ষী ছিল সন্দেশখালি ।

সেটা খুব বেশিদিনের পুরনো ঘটনাও নয় ! 2021 সালের বিধানসভা নির্বাচনের পরবর্তী সময়ে সন্দেশখালিতে একটি কর্মসূচিতে গিয়ে আক্রান্ত হতে হয়েছিল রাজ্যের গ্রন্থাগার মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরিকে । তাঁর গাড়িতেও ভাঙচুর চালিয়েছিল হামলাকারীরা । সেই ঘটনাতেও নাম জড়িয়েছিল সন্দেশখালির দাপুটে তৃণমূল নেতা শেখ শাহজাহানের ।

ঘটনার পর মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরি শেখ শাহজাহানকে 'দুষ্কৃতী' অ্যাখা দিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার আরজি জানিয়েছিলেন । কিন্তু, ব্যবস্থা নেওয়া তো দূরের কথা, তাঁর টিকিও পর্যন্ত ছুঁতে পারেনি পুলিশ । কারণ ! ওয়াকিবহাল মহলের মতে, শাহজাহানের দাপট এতটাই যে তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সাহস কেউ দেখাতে পারেনি । তাই, এক্ষেত্রেও ইডি আধিকারিকদের ওপর হামলার ঘটনায় আদৌও পুলিশ স্বতঃস্ফূর্তভাবে কোনও পদক্ষেপ করবে কি না, তা নিয়েও রয়েছে ঘোর সংশয় ।

কিন্তু কে এই শেখ শাহজাহান ? যাঁর জন্য এত মানুষ সাতসকালে হুড়মুড়িয়ে চলে এল ইডি-কে সরাতে ? এমনিতে তিনি জেলা পরিষদের একজন কর্মাধ্যক্ষ । গত নির্বাচনেই জয়ী হয়ে এই পদ পেয়েছেন তিনি । এর আগে তিনি ছিলেন পৌরসভার চেয়ারম্যান । তবে বেশিদিনের ‘তৃণমূলী’ তিনি নন । এলাকার বাসিন্দারা বলছেন, একসময় সিপিএমের সমর্থক ছিলেন । বাম আমলে তৎকালীন আবাসনমন্ত্রী গৌতম দেবের ঘনিষ্ঠও নাকি ছিলেন এই শেখ শাহজাহান । তখনও লাল ঝান্ডার দৌলতে তিনি তাঁর আধিপত্য বজায় রেখেছিলেন ।

তৃণমূল জমানাতেও এলাকায় শাহজাহানের 'নবাবিয়ানা' কমেনি এতটুকু । 2011 সালে তৃণমূল ক্ষমতায় আসার পরই তিনি সিপিএমের সঙ্গ ছেড়ে রাতারাতি শাসক দলে ভিড়ে যান ৷ সূত্রের খবর, একসময় জেলার দাপুটে তৃণমূল নেতা ও মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের নজরে পড়ে যান শেখ শাহজাহান । তারপর থেকেই পার্টিতে রকেট গতিতে উত্থান হতে থাকে জ্যোতিপ্রিয়র আস্থাভাজন এই তৃণমূল নেতার । প্রথমে সন্দেশখালি-1 ব্লকের সভাপতি করা হয় তাঁকে । জেলা পরিষদের আসনে জেতার পর তাঁকে মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ কর্মাধ্যক্ষের মতো গুরুদায়িত্ব দেয় তৃণমূল ।

এলাকায় কান পাতলেই শোনা যায়, শেখ শাহজাহানের দাপট ! ইটভাটায় সামান্য কয়লা কারবার দিয়ে তিনি শুরু করেন তাঁর ব‍্যবসার হাতেখড়ি । আজ সেই তৃণমূল নেতাই কোটি কোটি টাকার মালিক । কী নেই তাঁর ! ইটভাটা থেকে শুরু করে একের পর এক ভেড়ি । এমনকি, ব‍্যক্তিগত লঞ্চও রয়েছে তৃণমূলের দাপুটে নেতা শেখ শাহজাহানের । যদিও এই এলাকার কেউই প্রকাশ্য়ে কোনও কথা বলতে নারাজ ৷

লোকমুখে প্রচলিত রয়েছে, শাহজাহানের কথা ছাড়া একটা পাতাও নড়ে না সন্দেশখালিতে । তিনিই হলেন সেখানকার বেতাজ বাদশা ! বকলমে এই তৃণমূল নেতাই নাকি আলাদা প্রশাসন চালান । তাঁর কথাই সন্দেশখালি, ন‍্যাজাট অঞ্চলে শেষ কথা । ফলে, ভুড়ি ভুড়ি অভিযোগ সত্ত্বেও পুলিশ তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে গিয়ে দু'বার ভাবে । এর আগে একবার তাঁর বাড়িতে অভিযান চালাতে গিয়ে আক্রান্ত হতে হয় পুলিশকে । সুতরাং প্রশাসনের অজানা কিছুই নয় । কিন্তু শাহজাহানের তাতে কিছুই যায়-আসে না বলে অভিযোগ ।

স্থানীয়দের দাবি, সবাই সব জানার পরও অনায়াসে একের পর এক পদ পেয়ে গিয়েছেন তিনি । শোনা যায়, দলের শীর্ষ নেতৃত্বকেও অনেক সময় তোয়াক্কা করেন না শাহজাহান । কিন্তু ‘বাহুবলী’ নেতার কদর কমে না । ভোটব্যাংকও নাকি থাকে তাঁর হাতেই । একসময় হেরোইনের ব্যবসা করার অভিযোগও উঠেছিল শাহজাহানের বিরুদ্ধে । সেসব অবশ্য তিনি গায়েই মাখেন না ।

সত‍্যিই তিনি 'নবাব' । তা না হলে ইডি আধিকারিকদের ওপর হামলা চালিয়ে তাঁদের কয়েকজনকে রক্তাক্ত করার সাহস দেখাতেন না বলছেন স্থানীয়রা ! যদিও ঘটনার পর থেকে খোঁজ মিলছে না সন্দেশখালির 'ত্রাস' শেখ শাহজাহানের । কোথায় রয়েছেন, তাও কেউ স্পষ্টভাবে বলতে পারছেন না !

আরও পড়ুন:

  1. তৃণমূল নেতার বাড়িতে অভিযানে হামলা, রেশন দুর্নীতির তদন্তে রক্তাক্ত ইডি আধিকারিকরা
  2. সন্দেশখালির ঘটনা বিজেপির উস্কানির প্রভাবে হয়েছে, দাবি তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষের
  3. সন্দেশখালির ঘটনায় এনআইএ তদন্ত চেয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে চিঠি সুকান্তর
ETV Bharat Logo

Copyright © 2024 Ushodaya Enterprises Pvt. Ltd., All Rights Reserved.