লালবাজারের মুকুটে যুক্ত হল 'স্কচ অ্যাওয়ার্ড', সম্মানিত প্রণাম ও সুকন্যা

author img

By ETV Bharat Bangla Desk

Published : Jan 18, 2024, 4:27 PM IST

লালবাজার

Kolkata Police Receives SKOCH Award: কলকাতা পুলিশের মাথায় নয়া মুকুট ৷ 'স্কচ অ্যাওয়ার্ড' পেল লালবাজার ৷ কলকাতা পুলিশের কমিউনিটি পুলিশিংয়ের দু'টি অধ্যায় 'প্রণাম' এবং 'সুকন্যা' পেয়েছে এই সম্মান ৷

বিশেষ স্কচ অ্যাওয়ার্ড পেল লালবাজার

কলকাতা, 18 জানুয়ারি: কলকাতা পুলিশের মুকুটে যুক্ত হল একটি নতুন পালক। নাম 'স্কচ অ্যাওয়ার্ড'। গতকাল কলকাতার অতিরিক্ত নগরপাল শুভঙ্কর সিনহা সরকারকে চিঠি পাঠিয়ে এই কথা জানিয়েছে স্কচ গ্রুপ। সম্মানিত হয়েছে কলকাতা পুলিশের কমিউনিটি পুলিশিংয়ের দু'টি বহুল চর্চিত প্রকল্প 'প্রণাম' এবং 'সুকন্যা'।

কিন্তু এই প্রণাম প্রকল্পটি আদতে কী?এই বিষয়ে আলোকপাত করতে গিয়ে কলকাতা পুলিশের এক উচ্চপদস্থ আধিকারিক বলেন, মূলত যাঁদের সন্তান বাইরে থাকেন, এমন বয়স্ক নাগরিক অথবা নিঃসন্তান এবং অবিবাহিত প্রবীণদের নিয়ে 2009 সালে কলকাতা পুলিশ শুরু করেছিল এই প্রণাম প্রকল্প। এই বিষয়ে কলকাতা পুলিশের অতিরিক্ত নগরপাল শুভঙ্কর সিনহা সরকার ইটিভি ভারতকে বলেন, "প্রত্যেকটি থানায় আমরা একজন করে সাব-ইন্সপেক্টরকে রেখেছি যিনি মূলত প্রণামের সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। বর্তমানে তাদের কী প্রয়োজন সেই বিষয়গুলিও তাঁরা জানেন। এছাড়াও বিভিন্ন উৎসবের দিন যেমন পুজো বা বড়দিনকে উপলক্ষ্য করে প্রণামের সকল সদস্যদের একটি বাসে করে কলকাতা পুলিশের তত্ত্বাবধানে নির্বিঘ্নে বিভিন্ন মণ্ডপ পরিদর্শনের ব্যবস্থা রয়েছে। আমরা এই সদস্য সংখ্যা আরও বৃদ্ধি করার চেষ্টা করছি। আর স্কচ গ্রুপের তরফ থেকে এইরকম একটা সম্বর্ধনা পেয়ে আমরা কলকাতা পুলিশ আরও নতুন করে উৎসাহ পেলাম।

  • We are pleased to share with you that our Pronam & Sukanya initiatives are to be conferred the prestigious SKOCH Award 2023. Pronam is for the welfare of senior citizens, Sukanya is an initiative to impart self-defence training to girl students in the city's schools and colleges. pic.twitter.com/6lW0SoUXUd

    — Kolkata Police (@KolkataPolice) January 17, 2024 " class="align-text-top noRightClick twitterSection" data=" ">

পাশাপাশি অপর যেই প্রকল্পটির স্কচ অ্যাওয়ার্ড পেয়েছে তা হল সুকন্যা। কিন্তু এই সুকন্যা প্রকল্পটি কী? সুকন্যা প্রকল্পে কলকাতা তথা শহরতলীর একাধিক স্কুলের ছাত্রীদের আত্মরক্ষার প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। ক্যারাটে, জুডো, তাইকোন্ড থেকে শুরু করে উশু-র মতো বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়ে থাকে । 2014 সালের মার্চে কলকাতা পুলিশ এই নিয়ে প্রস্তাব পাঠায়। এরপরর রাজ্যের নারী ও শিশুকল্যাণ দফতর তাতে অনুমোদন দেয়। প্রাথমিক পর্যায়ে এক বছরের জন্য প্রায় কুড়ি লক্ষ টাকা বরাদ্দ করা হয় ওই দফতরে। প্রথম বছরে শহরের 16টি মেয়েদের স্কুলে প্রশিক্ষণের কাজ শুরু করে কলকাতা পুলিশ।

জানা গিয়েছে, মূলত সুকন্যা'র পাইলট প্রকল্পের জন্য পুলিশের 9টি ডিভিশনের প্রতিটি থেকে বাছা হয়েছে দু'টি করে স্কুল। প্রথম পর্যায়ে নবম থেকে দ্বাদশ এই চারটি ক্লাসের মোট 20 জন ছাত্রীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। ক্যারাটে, জুডো, বক্সিং, কুস্তি, উশু-সহ আটটি সংগঠনের বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের মহিলা শিক্ষকরা সপ্তাহে তিন দিন স্কুলে গিয়ে প্রশিক্ষণ দেন। সংশ্লিষ্ট প্রজেক্টটি বর্তমানে এতটাই জনপ্রিয় হয়েছে যে কলকাতা পুলিশের পাশাপাশি এই সুকন্যা পাইলট প্রজেক্ট গ্রহণ করেছে বিধাননগর কমিশনারেট, হাওড়া কমিশনারেট এবং ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেট।

এই বিষয়ে কলকাতা পুলিশের এক মহিলা পুলিশ কর্মী বলেন, "রাস্তাঘাটে চলতে গেলে মহিলাদের অতিরিক্ত সতর্কতা অবলম্বন করতে হয়। একজন মহিলা চাইলে নিজের আত্মরক্ষা খুব ভালোভাবেই করতে পারেন। শুধু চাই বিশেষ প্রশিক্ষণ। আর সেই বিশেষ প্রশিক্ষণ দেওয়ার কাজই করে চলেছে কলকাতা পুলিশ।"

আরও পড়ুন:

  1. বর্ষবরণের রাতে দেড় হাজারের বেশি অভিযোগ দায়ের কলকাতা পুলিশে, গ্রেফতার 457
  2. কলকাতায় রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ ব্যবসায়ী, উদ্ধার হওয়া গাড়ি থেকে মিলল ইঙ্গিতপূর্ণ চিঠি
  3. বড়দিন-বর্ষবরণে পার্ক স্ট্রিটকে 12 জোনে ভাগ করে নিরাপত্তার প্রস্তুতি লালবাজারের
ETV Bharat Logo

Copyright © 2024 Ushodaya Enterprises Pvt. Ltd., All Rights Reserved.