ফের অনাহারে মধু চা বাগানের শ্রমিকের মৃত্যু ! গাফিলতির অভিযোগ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে

author img

By ETV Bharat Bangla Desk

Published : Feb 7, 2024, 7:19 PM IST

Updated : Feb 7, 2024, 11:04 PM IST

ETV BHARAT

Tea garden worker dies: ফের অনাহারে মধু চা বাগানের শ্রমিকের মৃত্যুর অভিযোগ উঠল ৷ এই ঘটনায় সরকার ও কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ উঠেছে ৷

চা বাগানের শ্রমিকের মৃত্যু ঘিরো তরজা

শিলিগুড়ি, 7 ফেব্রুয়ারি: রাজ্যে ফের অনাহারে চা বাগান শ্রমিকের মৃত্যুর অভিযোগ । আর ওই অভিযোগ উঠতেই শোরগোল পড়ে গিয়েছে রাজ্য রাজনীতির পাশাপাশি প্রশাসনিকমহলে । ওই শ্রমিকের মৃত্যুর জন্য রাজ্য সরকার ও জেলা প্রশাসন দায়ী বলে অভিযোগ উঠেছে । জেলা প্রশাসন ছাড়াও বাগান কর্তৃপক্ষ, খাদ্য দফতরের গাফিলতির কারণে ওই শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ ।

জানা গিয়েছে, আলিপুরদুয়ার জেলার কালচিনি ব্লকের মধু চা বাগানের শ্রমিক ধনী ওঁরাওয়ের (58) অনাহারে মৃত্যু হয়েছে । তিনি 2 ফেব্রুয়ারি তাঁর ত্রিপল দেওয়া কাঁচা বাড়িতে মারা যান । শুধু তাই নয়, তাঁর স্ত্রী আশারানি ওঁরাওয়েরও অনাহারের ফলে শারীরিক পরিস্থিতি আশংকাজনক । ধনী ওঁরাওয়ের মৃত্যুর পর পশ্চিমবঙ্গ চা মজদুর সমিতির তরফে ওই মৃত্যুর আসল কারণ জানার জন্য ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং কমিটি গঠন করা হয় ।

অভিযোগ, সত্য উদঘাটন করতে গিয়ে চা বাগানের একাধিক অব্যস্থার ছবি উঠে আসে । চা বাগানের কোনও শ্রমিক আবাসন প্রকল্পের সুবিধা পাননি । চা বাগানে নেই কোনও পর্যাপ্ত চিকিৎসার ব্যবস্থা । রেশন বণ্টনে সব থেকে বেশি অভিযোগ উঠে আসে । শ্রমিকদের নিয়মিত রেশন দেওয়া হচ্ছিল না । অভিযোগ, ধনী ওঁরাও বিগত তিন বছর ধরে কোনও রেশন পাচ্ছিলেন না । পাড়া প্রতিবেশীদের থেকে ভিক্ষা করে দিনযাপন করছিলেন ধনী ওঁরাও ও তাঁর স্ত্রী । অনাহারের ফলে ধনী ওঁরাও পরবর্তীতে শারীরিকভাবেও অসুস্থ হয়ে পড়ায় চা বাগানে কাজ করার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেন । ফলে স্থায়ী কর্মী হলেও তাঁর বেতন দেওয়া বন্ধ করে দেয় বাগান কর্তৃপক্ষ ।

তার উপর আধারকার্ড না থাকায় কোনো ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট ছিল না ওই অসহায় দম্পতির । এরপর 2 ফেব্রুয়ারি বাড়িতে মারা যান ধনী ওঁরাও । তাঁর মৃত্যুর পর আত্মীয় পরিজনেরা তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন করেন । বিষয়টি নজরে আসে পশ্চিমবঙ্গ চা মজদুর সমিতির । তাঁরা ধনী ওঁরাওয়ের মৃত্যু নিয়ে প্রশাসন, শ্রম দফতরের কাছে অভিযোগ জানায় । অভিযোগ জানাতেই নড়েচড়ে বসে প্রশাসন । মঙ্গলবার ধনী ওঁরাওয়ের স্ত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় ৷ পাশাপাশি তাঁর হাতে রেশন সামগ্রী তুলে দেওয়া হয় ।

বুধবার শিলিগুড়িতে রাজ্য সরকার, জেলা প্রশাসনের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলেন মৃতের ভাই চৈতু ওঁরাও, প্রতিবেশী রাজ কারকেট্টা, বিনয় কারকেট্টা ও আইনজীবী পূর্বায়ন চক্রবর্তী । পূর্বায়ন চক্রবর্তী বলেন, "ধনী ওঁরাওয়ের মৃত্যুর থেকেই মধু চা বাগানের আসল সত্যিটা প্রকাশ্যে আসে । চা বাগানে চরম দুর্দশায় দিন কাটাচ্ছেন শ্রমিকরা । রেশন, আবাসন, চিকিৎসা ব্যবস্থা কিছুই নেই ।"

মৃতের চাই চৈতু ওঁরাও বলেন, "দাদাদের খাওয়াদাওয়ার চরম সমস্যা ছিল। অনাহারের কারণে কাজেও যেতে পারছিল না । বাগান কর্তৃপক্ষ বা সরকার কেউ সাহায্য করেনি ।"

আলিপুরদুয়ারের জেলাশাসক সুরিন্দর মীনা বলেন, "যেভাবে মৃত্যু হয়েছে তা আসল নয় । তবে মৃত্যু হয়েছে । ঠিক কী কারণে মৃত্যু হয়েছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে ।" কালচিনির বিধায়ক বলেন, " উত্তরবঙ্গের যুগ্ম শ্রম আধিকারিক পার্থপ্রতিম চক্রবর্তী বলেন, "আমি আগে জানতাম না । খোঁজ নিয়ে দেখা হবে ।"

ওই বিষয়ে চা বাগান মালিক শ্যামসুন্দর গোয়েলের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি উত্তর দেননি ৷ কালচিনির বিধায়ক বিশাল লামা বলেন, "এরকম ঘটনা আমার জানা নেই । যদি অনাহারে মৃত্যু হয়েও থাকে তবে তা নিয়ে আমরা ফের সরব হব ।"

প্রসঙ্গত, 2015 সালেও ওই চা বাগানে অনাহারে শ্রমিকের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছিল । তারপর ধুমচিপাড়া চা বাগানেও একইভাবে তিন শ্রমিকের মৃত্যুর ঘটনা ঘটে । মধু চা বাগানটি 2014 সালে বন্ধ হয়ে যায় । 2021 সালে ফের চা বাগানটি খোলে ।

আরও পড়ুন:

  1. শিশু দিবসে আগ্রহ নেই, খাবারের টোটো এলেই থালা হাতে দৌড়ে বটগাছের নীচে লাইন দেয় ওরা
  2. মাদলের তালে ভরা জ্যোৎস্নায় মশাল জ্বালিয়ে তোলা হচ্ছে চা পাতা!
  3. ভিড় এড়িয়ে চলে আসুন প্রকৃতির কোলে, বড়দিঘির চা বাগানই হোক আপনার 'ডিয়ার ডেস্টিনেশন'
Last Updated :Feb 7, 2024, 11:04 PM IST
ETV Bharat Logo

Copyright © 2024 Ushodaya Enterprises Pvt. Ltd., All Rights Reserved.