ETV Bharat / state

মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্যের বিরুদ্ধে হাইকোর্টের দ্বারস্থ বিশ্ব হিন্দু পরিষদ - Vishva Hindu Parishad on Mamata

author img

By ETV Bharat Bangla Team

Published : May 22, 2024, 11:02 PM IST

Vishva Hindu Parishad at Cal HC: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের বিরুদ্ধে এবার হাইকোর্টের দ্বারস্থ হল বিশ্ব হিন্দু পরিষদ ৷ মুখ্যমন্ত্রীকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানিয়েছে এই ধর্মীয় সংগঠন ৷

Calcutta High Court
কলকাতা হাইকোর্ট (নিজস্ব ছবি)

কলকাতা, 22 মে: সাধু-সন্ন্যাসীদের নিয়ে বেলাগাম মন্তব্যের জেরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বুধবার কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হল বিশ্ব হিন্দু পরিষদ । একটি নির্বাচনী জনসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী যে রামকৃষ্ণ মিশন, ভারত সেবাশ্রম সঙ্ঘ ও ইসকনের সঙ্গে বিজেপিকে জড়িয়ে সাধু-সন্ন্যাসীদের বিরুদ্ধে মন্তব্য করেছেন, সেই বক্তব্যের বিরুদ্ধে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ ।

সঙ্ঘের বক্তব্য, মুর্শিদাবাদের ভারত সেবাশ্রমের সম্পাদক কার্তিক মহারাজকে উদ্দেশ্য করে মুখ্যমন্ত্রী যে মন্তব্য করেছেন, তার মধ্যে দিয়ে সাধু-সন্ন্যাসীদের অসম্মান করা হয়েছে । আদালত এই বিষয়ে অবিলম্বে মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ করুক ৷ এই দাবি করে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেছে । মামলাকারীর বক্তব্য, মুখ্যমন্ত্রী দাবি করেছেন, ভারতীয় জনতা পার্টির সঙ্গে যোগসাজশ করে অশান্তি বাঁধানোর চেষ্টা করা হচ্ছে, যা সর্বৈব মিথ্যা । এর জন্য মুখ্যমন্ত্রীকে ক্ষমা চাইতে হবে ।

উল্লেখ্য, গত শনিবার হুগলির গোঘাটে একটি নির্বাচনী জনসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিযোগ করে বলেন, "সব সাধু সমান হয় না । সব স্বজন সমান হয় না । আমাদের মধ্যেও কি আমরা সবা‌ই সমান ? এই যে বহরমপুরের একজন মহারাজ আছেন । আমি শুনেছি অনেক দিন ধরে, কার্তিক মহারাজ । ভারত সেবাশ্রম সঙ্ঘকে আমি খুব শ্রদ্ধা করতাম । আমার শ্রদ্ধার্ঘ্যের তালিকায় তারা দীর্ঘ দিন ধরে আছে । কিন্তু যে লোকটা বলে, তৃণমূলের এজেন্ট বসতে দেব না, সেই লোকটাকে আমি সাধু বলে মনে করি না । তার কারণ, সে ডাইরেক্ট পলিটিক্স করে দেশটার সর্বনাশ করছে ।"

এর বিরুদ্ধে পালটা বিষ্ণুপুরের সভা থেকে প্রধানমন্ত্রী মোদি বলেছিলেন, "তৃণমূল সাধুসন্তদের গালিগালাজ করছে । ইসকন, রামকৃষ্ণ মিশন এবং ভারত সেবাশ্রম সঙ্ঘ বিভিন্ন বিপদে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে । বাংলাকে গৌরবান্বিত করেছে । কিন্তু বাংলার মুখ্যমন্ত্রী বলছেন, সাধুরা এবং এই সংগঠনগুলি দেশকে নষ্ট করছে । এখানকার মুখ্যমন্ত্রী মুসলিম কট্টরপন্থীদের চাপে ভোট পেতে আমাদের সাধুদের এবং মহান সংগঠনগুলিকে গালিগালাজ করছেন, বদনাম করছেন ।"

একইসঙ্গে কার্তিক মহারাজও এই বক্তব্যের জন্য মুখ্যমন্ত্রীকে আইনি চিঠি দিয়ে ক্ষমা চাওয়ার দাবি করেছিলেন । না হলে তিনি আইনি পদক্ষেপ করবেন বলে হুঁশিয়ারিও দেন ।

আরও পড়ুন :

  1. মমতার মন্তব্যের বিরোধিতায় শহরে সাধুদের ধিক্কার মিছিল, ষষ্ঠ দফার আগে চাপে তৃণমূল
  2. কার্তিক মহারাজ রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, মমতার পাশে দাঁড়িয়ে দাবি অধীরের
  3. 'ভগবানের থেকেও বড়, মন্দিরে থাকুন পুজো করব'; মোদিকে কটাক্ষ মমতার

কলকাতা, 22 মে: সাধু-সন্ন্যাসীদের নিয়ে বেলাগাম মন্তব্যের জেরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বুধবার কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হল বিশ্ব হিন্দু পরিষদ । একটি নির্বাচনী জনসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী যে রামকৃষ্ণ মিশন, ভারত সেবাশ্রম সঙ্ঘ ও ইসকনের সঙ্গে বিজেপিকে জড়িয়ে সাধু-সন্ন্যাসীদের বিরুদ্ধে মন্তব্য করেছেন, সেই বক্তব্যের বিরুদ্ধে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ ।

সঙ্ঘের বক্তব্য, মুর্শিদাবাদের ভারত সেবাশ্রমের সম্পাদক কার্তিক মহারাজকে উদ্দেশ্য করে মুখ্যমন্ত্রী যে মন্তব্য করেছেন, তার মধ্যে দিয়ে সাধু-সন্ন্যাসীদের অসম্মান করা হয়েছে । আদালত এই বিষয়ে অবিলম্বে মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ করুক ৷ এই দাবি করে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেছে । মামলাকারীর বক্তব্য, মুখ্যমন্ত্রী দাবি করেছেন, ভারতীয় জনতা পার্টির সঙ্গে যোগসাজশ করে অশান্তি বাঁধানোর চেষ্টা করা হচ্ছে, যা সর্বৈব মিথ্যা । এর জন্য মুখ্যমন্ত্রীকে ক্ষমা চাইতে হবে ।

উল্লেখ্য, গত শনিবার হুগলির গোঘাটে একটি নির্বাচনী জনসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিযোগ করে বলেন, "সব সাধু সমান হয় না । সব স্বজন সমান হয় না । আমাদের মধ্যেও কি আমরা সবা‌ই সমান ? এই যে বহরমপুরের একজন মহারাজ আছেন । আমি শুনেছি অনেক দিন ধরে, কার্তিক মহারাজ । ভারত সেবাশ্রম সঙ্ঘকে আমি খুব শ্রদ্ধা করতাম । আমার শ্রদ্ধার্ঘ্যের তালিকায় তারা দীর্ঘ দিন ধরে আছে । কিন্তু যে লোকটা বলে, তৃণমূলের এজেন্ট বসতে দেব না, সেই লোকটাকে আমি সাধু বলে মনে করি না । তার কারণ, সে ডাইরেক্ট পলিটিক্স করে দেশটার সর্বনাশ করছে ।"

এর বিরুদ্ধে পালটা বিষ্ণুপুরের সভা থেকে প্রধানমন্ত্রী মোদি বলেছিলেন, "তৃণমূল সাধুসন্তদের গালিগালাজ করছে । ইসকন, রামকৃষ্ণ মিশন এবং ভারত সেবাশ্রম সঙ্ঘ বিভিন্ন বিপদে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে । বাংলাকে গৌরবান্বিত করেছে । কিন্তু বাংলার মুখ্যমন্ত্রী বলছেন, সাধুরা এবং এই সংগঠনগুলি দেশকে নষ্ট করছে । এখানকার মুখ্যমন্ত্রী মুসলিম কট্টরপন্থীদের চাপে ভোট পেতে আমাদের সাধুদের এবং মহান সংগঠনগুলিকে গালিগালাজ করছেন, বদনাম করছেন ।"

একইসঙ্গে কার্তিক মহারাজও এই বক্তব্যের জন্য মুখ্যমন্ত্রীকে আইনি চিঠি দিয়ে ক্ষমা চাওয়ার দাবি করেছিলেন । না হলে তিনি আইনি পদক্ষেপ করবেন বলে হুঁশিয়ারিও দেন ।

আরও পড়ুন :

  1. মমতার মন্তব্যের বিরোধিতায় শহরে সাধুদের ধিক্কার মিছিল, ষষ্ঠ দফার আগে চাপে তৃণমূল
  2. কার্তিক মহারাজ রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, মমতার পাশে দাঁড়িয়ে দাবি অধীরের
  3. 'ভগবানের থেকেও বড়, মন্দিরে থাকুন পুজো করব'; মোদিকে কটাক্ষ মমতার
ETV Bharat Logo

Copyright © 2024 Ushodaya Enterprises Pvt. Ltd., All Rights Reserved.