রবিবার প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের আগে জটিলতা, দূষণ ছাড়পত্র মিলল না কল্যাণী এইমসের

author img

By ETV Bharat Bangla Team

Published : Feb 24, 2024, 6:16 PM IST

ETV BHARAT

No Environmental Clearance to AIIMS Kalyani: আগামিকাল ভার্চুয়ালি কল্যাণী এইমসের উদ্বোধনের কথা ছিল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ৷ কিন্তু, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশিকা বাধা হয়ে দাঁড়াল এইমসের পরিবেশগত ছাড়পত্র পাওয়ার ক্ষেত্রে ৷ তাই উদ্বোধনের একদিন আগে এর ভবিষ্যৎ নিয়ে উঠল প্রশ্ন ৷

কল্যাণী এইমসকে পরিবেশগত ছাড়পত্র দিল না রাজ্য দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদ

কলকাতা, 24 ফেব্রুয়ারি: রবিবার কল্যাণী এইমসের ইন্ডোর পরিষেবা গুজরাতের রাজকোট থেকে ভার্চুয়ালি উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৷ তার আগেই এই হাসপাতালের পরিবেশগত ছাড়পত্র নিয়ে নয়া বিতর্ক দেখা দিয়েছে ৷ শনিবার রাজ্যের দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে কল্যাণী এইমসের ইন্ডোর ভবনের পরিবেশগত ছাড়পত্র দেওয়া যাবে না ৷

দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদ সূত্রে খবর, 2 লক্ষ 22 হাজার 786 বর্গমিটার অঞ্চলে তৈরি হাসপাতালটিকে পরিবেশগত ছাড়পত্র এখনই দেওয়া সম্ভব নয় ৷ কিন্তু কারণটা কী ? মূলত দু’টি বিষয় ৷ হাতিয়ার করা হচ্ছে সুপ্রিম কোর্টের দু’টি রায়কে ৷ একটি গত 2 জানুয়ারি এবং পরবর্তীতে 2 ফেব্রুয়ারি ৷ কী রয়েছে সেই রায়ে ? এ নিয়ে রাজ্য দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের চেয়ারম্যান কল্যাণ রুদ্র বলেন, "এই হাসপাতাল নির্মাণের দায়িত্বে রয়েছে এইচএসসিসি ইন্ডিয়া লিমিটেড ৷ এই ভবন তৈরির কাজ অনেকটা এগিয়ে যাওয়ার পরে পরিবেশগত ছাড়পত্রের জন্য আবেদন করা হয়েছে ৷ যেহেতু ছাড়পত্রে আবেদনে অনেক দেরি হয়েছে ৷ তাই ভায়োলেশন ক্যাটাগরিতে 2022 সালের 6 অক্টোবর আবেদন করা হয়েছিল ৷"

কী এই ভায়োলেশন ক্যাটেগরি ? তিনি বলেন, "তৎকালীন নিয়ম অনুযায়ী, দায়িত্বে থাকা দু’টি কেন্দ্রীয় সংস্থা মোট 15 কোটি টাকা মোট জরিমানার কথা জানিয়ে ছাড়পত্র দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় ৷ তবে, সংস্থার পক্ষ থেকে 2023 সালের 22 সেপ্টেম্বর স্টেট এনভায়রনমেন্ট ইম্প্যাক্ট অ্যাসেসমেন্ট অথরিটিকে একটি চিঠি করে, এই জরিমানা মকুব করার আবেদন করা হয় ৷ সেই চিঠি স্টেট এনভায়রনমেন্ট ইমপ্যাক্ট অ্যাসেসমেন্ট অথরিটি পাঠিয়ে দেয় পরিবেশ মন্ত্রককে ৷ পরিবেশ মন্ত্রকের এই বিষয়ে কোনও নির্দেশিকা আসার আগেই, সুপ্রিম কোর্ট রায় দেয় জরিমানার বদলে কোনও ছাড়পত্র দেওয়া যাবে না ৷ ফলে এই মুহূর্তে সুপ্রিম কোর্টের রায় অনুযায়ী, এখনই ছাড়পত্র দেওয়া সম্ভব নয় ৷ সুপ্রিম কোর্ট তার আগের নির্দেশ প্রত্যাহার করার পরেই, আমরা কিছু করতে পারব ৷"

ছাড়পত্র না-পাওয়ার পরেও, যদি উদ্বোন হয় ও পরিষেবা চালু হয়, সেক্ষেত্রে পর্ষদের কী করণীয় ? এই প্রশ্নের উত্তরে কল্যাণ রুদ্র বলেন, "আমরা ইতিমধ্যে পরিবেশ আদালতে জানিয়েছি গোটা বিষয়টা ৷ দেশের কোনও নাগরিক বা কোনও সরকার সুপ্রিম কোর্টের রায় লঙ্ঘন করতে পারে না ৷ এক্ষেত্রে লঙ্ঘিত হলে আইনের পথ নেওয়া হবে ৷ এমন ঘটনা শুধু এইমস কল্যাণীর ক্ষেত্রে নয়, রাজ্যে আরও 25টি প্রকল্পের ক্ষেত্রে ঘটেছে ৷ কেন্দ্রীয় পরিবেশ পোর্টালে গেলেই তথ্য মিলবে ৷"

আরও পড়ুন:

  1. দুর্নীতি করে এইমসে চাকরি দিইনি, ক্ষমতায় এলে আরও দেব ; জগন্নাথের মন্তব্য ঘিরে চাঞ্চল্য
  2. দুর্নীতির তদন্ত করতে সিআইডিকে কেন্দ্রের অনুমতি নিতে হবে, কল্যাণী এইমস মামলায় নির্দেশ হাইকোর্টের
  3. কল্যাণী এইমসে বেআইনি নিয়োগের অভিযোগ, সিআইডি'র থেকে রিপোর্ট তলব হাইকোর্টের
ETV Bharat Logo

Copyright © 2024 Ushodaya Enterprises Pvt. Ltd., All Rights Reserved.