দানি আলভেজের বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ, বার্সেলোনার আদালতে শুনানি সোমবার

author img

By ETV Bharat Bangla Desk

Published : Feb 4, 2024, 12:57 PM IST

Image Courtesy: AP

Dani Alves: 2022 সালে যৌন নিপীড়নের দায়ে জেলবন্দি দানি আলভেজের মামলার শুনানি শুরু হবে সোমবার থেকে ৷ এই মামলায় দোষী প্রমাণিত হলে, প্রাক্তন বার্সেলোনা তারকার কমপক্ষে 9 বছরের কারাদণ্ডের আবেদন জানিয়েছেন সরকার পক্ষের আইনজীবী ৷

বার্সেলোনা, 4 ফেব্রুয়ারি: দানি আলভেজের বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতন মামলার শুনানি শুরু হবে সোমবার থেকে ৷ 2022 সালের 30 ডিসেম্বর বার্সেলোনার একটি নাইট ক্লাবে এক যুবতীকে যৌন হেনস্তার অভিযোগ ওঠে তাঁর বিরুদ্ধে ৷ যে মামলায় গত এক বছর ধরে জেলে রয়েছেন তিনি ৷ তবে, প্রাক্তন বার্সেলোনা ফুটবলার আলভেজ দাবি করেছেন, তিনি কোনও অন্যায় করেননি ৷ সোমবার থেকে বুধবার পর্যন্ত এই মামলার শুনানি চলবে স্প্যানিশ কোর্টহাউসে ৷

দানি আলভেজ দোষী সাব্যস্ত হলে কমপক্ষে 9 বছরের কারাদণ্ডের দাবি করেছে সরকারি আইনজীবী ৷ অন্যদিকে, অভিযোগকারিনীর আইনজীবীর দাবি কমপক্ষে 12 বছরের কারাদণ্ডের সাজা দেওয়া হোক ব্রাজিলিয়ান ফুটবল তারকাকে ৷ উল্লেখ্য, স্পেনের 2022 যৌন সম্মতি আইনে যৌন নিপীড়নের অপরাধের মধ্যে ভার্চুয়ালি কোনও মহিলার সঙ্গে খারাপ আচরণ, সরাসরি যৌন নির্যাতন ও ধর্ষণের মতো ঘটনাগুলি সামিল করা হয়েছে ৷ যেখানে বিভিন্ন স্তরের অপরাধের ক্ষেত্রে একেক রকম সাজার কথা বলা হয়েছে ৷ আর ধর্ষণের মতো ঘটনায় 15 বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হতে পারে দোষীর ৷

40 বছরের আলভেজকে 2023 সালের 20 জানুয়ারি গ্রেফতার করা হয়েছিল ৷ পুলিশ তাঁকে স্পেনে তলব করে নোটিশ ইস্যু করেছিল ৷ স্পেনে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশের মুখোমুখি হওয়ার পরেই তাঁকে গ্রেফতার করা হয় ৷ সেই সময় পুলিশের তদন্ত, অভিযোগকারীর বয়ান, সাক্ষী ও আলভেজের বক্তব্য শোনার পর আদালত তখন আলভেজকে জেলে বন্দি করার নির্দেশ দেয় ৷ উল্লেখ্য, গতবছর অগস্টে দানি আলভেজকে জেলবন্দি করার নির্দেশ দেওয়া হয় ৷

তার আগে ব্রাজিলিয়ান ফুটবলারের আইনজীবীরা নাইট ক্লাবের সিসিটিভি ফুটেজ আদালতের সামনে পেশ করে ৷ সেইসঙ্গে অভিযোগকারিনী ও অন্যান্য সাক্ষীদের বয়ানকে মিথ্যে প্রমাণ করার চেষ্টা করেছিলেন আলভেজের আইনজীবীরা ৷ তবে, আলভেজের আইনজীবীদের সেই চেষ্টা ব্যর্থ হয় তখন ৷ উল্লেখ্য, দানি আলভেজ শুরুতে অভিযোগকারী যুবতীকে চেনেন না বলে আদালতে দাবি করছিলেন ৷ কিন্তু, মামলা শুরু হওয়ার 3 মাস পর তিনি জানান, মহিলার সম্মতিতে তাঁর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক তৈরি হয়েছিল ৷

তাঁর জামিনের আবেদনও খারিজ করে দেয় আদালত ৷ কারণ, দানি আলভেজ জামিন পেয়ে ব্রাজিলে পালিয়ে যেতে পারে, এই আশঙ্কা করেছিল বিচারক ৷ পক্ষান্তরে আলভেজ পাসপোর্ট জমা রাখা ও ট্র্যাকিং ডিভাইস পরিধানের আবেদনও করেছিলেন ৷ কিন্তু, আদালত তা খারিজ করে দেয় ৷ উল্লেখ্য, ব্রাজিল তার অন্য দেশের আদালতে সাজাপ্রাপ্ত নাগরিককে প্রত্যপর্ণ করে না ৷ মূলত, সেই কারণেই স্পেনের আদালত দানি আলভেজের জামিনের আবেদন খারিজ করে দেওয়া হয় ৷

আরও পড়ুন:

  1. নিলামে উঠছে মেসি-বার্সেলোনার প্রথম 'রুমাল' চুক্তি
  2. যুবভারতীতে নিষ্ফলা হাইভোল্টেজ কলকাতা ডার্বি, পয়েন্ট ভাগাভাগি দুই প্রধানের
  3. ফাউল ছিল, রেফারির ভুলে জয় পেলাম না; পয়েন্ট খুইয়ে বিস্ফোরক কুয়াদ্রাত
ETV Bharat Logo

Copyright © 2024 Ushodaya Enterprises Pvt. Ltd., All Rights Reserved.