144 ধারা জারি থাকায় সন্দেশখালিতে বিজেপির প্রতিনিধি দলকে বাধা পুলিশের

author img

By ETV Bharat Bangla Desk

Published : Feb 10, 2024, 3:55 PM IST

ETV BHARAT

Sandeshkhali Unrest: 144 ধারা জারির মধ্যে সন্দেশখালিতে যাওয়া বিজেপির 4 সদস্যের প্রতিনিধি দলকে আটকাল পুলিশ ৷ আর পুলিশের তরফে বাধা পেয়ে তাদের সঙ্গে বাগবিতণ্ডায় জড়ালেন প্রতিনিধি দলের সদস্যরা ৷ অন্যদিকে, রাতভর সন্দেশখালিতে পুলিশের বিরুদ্ধে বাড়িতে ঢুকে অত্যাচারের অভিযোগ উঠেছে ৷

অশান্ত সন্দেশখালিতে জারি 144 ধারা ৷ বিজেপি প্রতিনিধি দলকে আটকাল পুলিশ

সন্দেশখালি, 10 ফেব্রুয়ারি: 144 ধারা জারির মধ্যেই অশান্ত সন্দেশখালিতে বিজেপির চার সদস্যের প্রতিনিধি দল ৷ তবে তাঁদের সন্দেশখালি থেকে বেশ কিছুটা দূরেই আটকে দিল পুলিশ ৷ যে ঘটনাকে ঘিরে বসিরহাটের এসডিপিও'র সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়েন বিজেপি নেতানেত্রীরা ৷ তাঁদের আটকাতে এ দিন ব়্যাফ ও অতিরিক্ত বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছিল ৷ অন্যদিকে, শুক্রবারের অশান্তির পর রাতভর সন্দেশখালিতে পুলিশের বিরুদ্ধে বাড়িতে ঢুকে অত্যাচারের অভিযোগ উঠেছে ৷

শনিবার দুপুর 12টা নাগাদ বিজেপির চার সদস্যের প্রতিনিধি দল আকুঞ্জি ও লস্কর পাড়া মেন রোড হয়ে এগোনোর চেষ্টা করে সন্দেশখালির দিকে ৷ যদিও দুই রাস্তার সংযোগস্থলে আগে থেকেই পুলিশ ব্যারিকেড দিয়ে পুরোপুরি বন্ধ করে দিয়েছিল ৷ ফলে বিজেপির চার সদস্যের প্রতিনিধি দল সন্দেশখালিতে ঢুকতে পারেনি ৷ বিজেপির প্রতিনিধি দলে ছিলেন রাজ‍্য বিজেপির সহ-সভাপতি সঞ্জয় সিং, রাজ‍্য কমিটির দুই সদস্য কৃষ্ণেন্দু মুখোপাধ্যায় ও অর্চনা মজুমদার এবং বিজেপির বসিরহাট সাংগঠনিক জেলার সভাপতি তাপস ঘোষ ৷

অন‍্যদিকে, পুলিশের তরফে বসিরহাটের এসডিপিও আমিনুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন ঘটনাস্থলে ৷ তিনি বিজেপি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে প্রথমে কথা বলেন ৷ 144 ধারা জারি থাকায় তাঁদের ফিরে যেতে অনুরোধ করেন ৷ কিন্তু পুলিশের তরফে বাধা পেয়ে বচসা শুরু হয় দু'পক্ষের মধ্যে ৷ বিজেপি অর্চনা মজুমদার এবং কৃষ্ণেন্দু মুখোপাধ্যায় এসডিপিও'র সঙ্গে কথা কাটাকাটিতে জড়িয়ে পড়েন ৷

বিজেপির তরফে এসডিপিও'কে বলা হয়, তাঁরা চারজনের বেশি ঢুকবেন না এলাকায় ৷ আক্রান্তদের সঙ্গে কথা বলেই শান্তিপূর্ণভাবে বেরিয়ে আসবেন সেখান থেকে ৷ কিন্তু, কোনও আবেদন-নিবেদনে গুরুত্ব দেননি এসডিপিও আমিনুল ইসলামকে ৷ তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন, 144 ধারা জারির মধ্যে কোনওভাবেই তাঁদের প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না সন্দেশখালিতে ৷ এতে অশান্তি আরও বাড়তে পারে ৷ বিজেপির প্রতিনিধি দলকে আটকাতে ব্যারিকেডের পাশাপাশি, ব়্যাফ ও মহিলা বাহিনীকেও প্রস্তুত রাখা হয়েছিল ৷

অন্যদিকে, তল্লাশির নামে রাতের অন্ধকারে সন্দেশখালির খুলনা পঞ্চায়েতের শিতলিয়া গ্রামে গ্রামবাসীদের ঘরে ঢুকে তাণ্ডব চালানোর অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধে ৷ মহিলাদের শ্লীলতাহানি ও একটি বাচ্চাকে ছুড়ে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে মদ্যপ পুলিশ আধিকারিকে বিরুদ্ধে ৷ স্থানীয়দের অভিযোগ, গ্রামের একাধিক বাসিন্দার ঘরে ঢুকে পুলিশ সেখানে লুটপাঠ, ভাঙচুর চালিয়েছে ৷ ঘটনায় নাম জড়িয়েছে স্থানীয় তৃণমূলের পঞ্চায়েত প্রধান সত‍্যজিৎ সান‍্যাল এবং তাঁর ঘনিষ্ঠ নেতা সফিকুল গাজির বিরুদ্ধে ৷ অভিযোগ, তাঁদের ইন্ধনেই পুলিশ গ্রামে ঢুকে তাণ্ডব চালিয়েছে ৷ যদিও, এ নিয়ে প্রশাসনের তরফে কোনও মন্তব্য করা হয়নি ৷

আরও পড়ুন:

  1. সন্দেশখালিতে শান্তি ফেরাতে রাজ্যপালের কাছে পদক্ষেপের আবেদন বিজেপির, সময় বেঁধে দিলেন শুভেন্দু অধিকারী
  2. সন্দেশখালিকে শান্ত করতে অনির্দিষ্টকালের জন্য 144 ধারা জারি প্রশাসনের, বন্ধ হচ্ছে ইন্টারনেট পরিষেবাও
  3. বন্দুক হাতে প্রকাশ্যে সন্দেশখালিতে দাপাদাপি দুষ্কৃতীর, পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন
ETV Bharat Logo

Copyright © 2024 Ushodaya Enterprises Pvt. Ltd., All Rights Reserved.