ঋত্বিক ঘটককে সেদিন 'না' বলতে পারেননি নার্গিস, অবসরের পরেও করেন 'দুর্বার গতি পদ্মা': বিশ্বজিৎ

author img

By ETV Bharat Bangla Desk

Published : Feb 8, 2024, 5:48 PM IST

Updated : Feb 8, 2024, 7:47 PM IST

ETV BHARAT

Biswajit Chatterjee: ঋত্বিক ঘটকের কথা শুনে 'না' বলতে পারেননি নার্গিস ৷ তাই অবসর নেওয়ার পরও তিনি অভিনয় করেন ঋত্বিক ঘটক পরিচালিত 'দুর্বার গতি পদ্মা'য় ৷ ইটিভি ভারতের নবনীতা দত্তগুপ্তকে জানালেন প্রবীণ অভিনেতা বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায় ৷

প্রবীণ অভিনেতা বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়

কলকাতা, 8 ফেব্রুয়ারি: ঋত্বিক ঘটকের পরিচালনায় 1971-72 সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের প্রেক্ষাপটে নির্মিত তথ্যচিত্র 'দুর্বার গতি পদ্মা'তে বাংলা মায়ের চরিত্রে অভিনয় করেন বলিউডের হার্টথ্রব নার্গিস । আর তাঁকে এই তথ্যচিত্রে অভিনয় করতে রাজি করানোর দায়িত্ব পড়েছিল বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের উপর । ঋত্বিক ঘটকের প্রয়াণ বার্ষিকীতে বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের কাছ থেকে জানা গেল সে দিনের এক না-জানা ঘটনার কথা ।

প্রবীণ অভিনেতা বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায় ইটিভি ভারতের প্রতিনিধিকে বলেন, "ঋত্বিকদার জন্ম বাংলাদেশে । আর বাংলাদেশে 1971-72 সালে যে অ্যাটাক হয়, তা রেডিয়োতে জানার পর ঋত্বিকদার প্রাণ কেঁদে উঠেছিল । আমরা রেডিয়োতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের ভাষণ নিয়মিত শুনতাম তখন । ঋত্বিকদা আমাকে বলেছিলেন, একটা ডকু ফিল্ম বানাতে পারবি ? মানুষকে জানাতে হবে বাংলাদেশের এই অসহায়তার কথা । আমি প্রোডিউসার ছিলাম । আর ঋত্বিকদা পরিচালক । তিন দিনে স্ক্রিপ্ট রেডি করেছিলেন । ঠিক করলেন নার্গিসকে বাংলা মায়ের চরিত্রে অভিনয় করাবেন ।"

তবে নার্গিস প্রথমে এই ফিল্ম করতে রাজি ছিলেন না বলে জানালেন প্রবীণ অভিনেতা ৷ তিনি ইটিভি ভারতকে বলেন, "নার্গিস ভাভি (বিশ্বজিৎ নার্গিসকে ভাভি সম্বোধন করতেন) তখন অফিসিয়ালি অবসর নিয়েছেন অভিনয় থেকে। আমি আর্জি জানালে প্রথমে রাজি হননি তিনি । কারণ তিনি অফিসিয়ালি রিটায়ার করেছেন । এরপর আমি বাংলাদেশের করুণ দুর্দশার কথা বলি ওনাকে । বলি, ঋত্বিকদা বানাচ্ছেন ডকু ফিল্মটা । ঋত্বিকদার কথা শুনেই নার্গিস ভাভির মন গলে । বড় শ্রদ্ধা করতেন ঋত্বিকদাকে । তাই তাঁর কথা শুনে আর না করতে পারেননি নার্গিস ভাভি । ঋত্বিক ঘটককে কেউই 'না' করতে পারতেন না ।"

অভিনেতার কাছ থেকেই জানা গেল যে, ঋত্বিক ঘটক তথ্যচিত্রের বিষয় সম্বন্ধে অভিনেত্রীকে বলেন যে, তিনি এই কাজটা করলে বহু মানুষের আশীর্বাদ পাবেন । নার্গিস সব শুনে অবশেষে রাজি হয়ে যান । তবে, তিনি একটি শর্ত রাখেন যে, তাঁর বাড়িতেই শুটিং করতে হবে । কারণ অন্য জায়গায় শুটিং করলেই সাংবাদিকরা আসবেন । তাঁর অনুরোধে তাঁর বাড়ির বাগানেই শ্যুটিং হয় । বলিউডের হার্টথ্রব অভিনয় করেন ঋত্বিক ঘটকের পরিচালনায়, বাংলা মায়ের চরিত্রে । বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায় সেখানে অভিনয় করেন একজন মুক্তিযোদ্ধার চরিত্রে ।

বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্য়ায় আরও বলেন, "ঋত্বিক ঘটক কত বড় মাপের চিত্রনির্মাতা তা নতুন করে বলার দরকার পড়ে না । কত কিছু শিখেছি মানুষটার কাছ থেকে । কী জানতেন না ? জ্ঞানের ভাণ্ডার ছিল ওঁর কাছে । চলতা ফিরতা এনসাইক্লোপিডিয়া যাকে বলে । আমি 'ম্যাড জিনিয়াস' বলতাম ঋত্বিকদাকে । কারণ বড্ড খামখেয়ালি আর মুডি ছিলেন । ক্ষণে ক্ষণে মুড চেঞ্জ হত । জীবনটা বড় এলোমেলো ছিল। মুম্বইতে একটা সময়ে আমার বাড়িতে থাকতেন ঋত্বিকদা । অনেককিছু শিখেছি ওঁর কাছ থেকে । বেঁচে থাকলে আরও অনেক ছবি করতে পারতেন । 'সংসার সীমান্তে' ছবিটা তাঁরই করার কথা ছিল । স্ক্রিপ্টটা তাঁর করা ছিল । ঋত্বিকদার সঙ্গে সবকিছু ফাইনাল হয়ে গিয়েছিল আমার, মাধবী মুখোপাধ্যায়ের আর হেমন্তদার । কিন্তু শেষ পর্যন্ত কাজটা ঋত্বিকদার বদলে করলেন তরুণ মজুমদার । ঋত্বিকদার আর করা হয়নি ৷"

আরও পড়ুন:

  1. লতার পাশে বসে নিজের প্রথম হিন্দি ছবি দেখেছিলেন, সুরসম্রাজ্ঞীর স্মৃতিচারণায় বিশ্বজিৎ
  2. বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের ছবিতে বীর সেনার ভূমিকায় জ্যাকি শ্রফ, গল্পে থাকছে নারীশক্তির কথাও
  3. বহু পুরনো দিনের গান থাকবে ছবিতে, পরিচালনায় ফিরে অকপট বিশ্বজিৎ
Last Updated :Feb 8, 2024, 7:47 PM IST
ETV Bharat Logo

Copyright © 2024 Ushodaya Enterprises Pvt. Ltd., All Rights Reserved.