ব্যারিকেড ভাঙল কৃষকদের 'দিল্লি চলো' অভিযান, পঞ্জাব-হরিয়ানা সীমানায় ধেয়ে এল টিয়ার গ্যাসের শেল

author img

By ETV Bharat Bangla Desk

Published : Feb 13, 2024, 2:06 PM IST

Updated : Feb 13, 2024, 2:27 PM IST

ETV Bharat

Delhi Chalo Farmers Protest Update: দিল্লির পথে কৃষকদের মহামিছিল ৷ লোহার, কংক্রিটের ব্যারিকেড ভেঙেই এগিয়ে চলল কৃষকরা ৷ তাদের রুখতে টিয়ার গ্যাসের শেল ছুড়ল পুলিশ ৷

পঞ্জাব ও হরিয়ানা সীমানায় কৃষকদের দিল্লি চলো মহামিছিলে টিয়ার গ্যাস ছুড়ল পুলিশ

চণ্ডীগড়, 13 ফেব্রুয়ারি: রাজধানীর দিকে আসতেই কৃষকদের লক্ষ্য করে ধেয়ে এল টিয়ার গ্যাস শেল ৷ মঙ্গলবার কৃষক সংগঠনগুলি তাদের দাবিদাওয়া নিয়ে 'দিল্লি চলো' মিছিল করার হুঁশিয়ারি দিয়েছিল ৷ আর এই মিছিল রুখতে পুলিশ প্রশাসনও সবদিক দিয়ে ব্যবস্থা নিয়েছে ৷ পঞ্জাব থেকে পঞ্জাব-হরিয়ানার শম্ভু সীমানায় মিছিল পৌঁছতেই কৃষদের লক্ষ্য করে টিয়ার গ্যাস শেল ছুড়তে থাকে পুলিশ ৷ এমনকী ড্রোনেও টিয়ার গ্যাস শেল ছোড়া হয় বলে অভিযোগ ৷

সরকারি সূত্রে জানা গিয়েছে, শম্ভু সীমানার কাছে কয়েকজন কৃষককে আটক করা হয়েছে ৷ অম্বালায় শম্ভু সীমানার কাছে লোহার ব্যারিকেড দিয়ে রাখা ছিল ৷ 'দিল্লি চলো' মিছিলের কয়েকজন তরুণ সমর্থক ওই ব্যারিকেড ভাঙার চেষ্টা করে ৷ একটি ব্যারিকেড ভেঙেও যায় ৷ তাঁরা ওই ব্যারিকেডটি ঘাগ্গর নদীর সেতু থেকে ছুড়ে ফেলার চেষ্টা করা হয় ৷ সেই সময় পুলিশ তাঁদের আটকাতে টিয়ার গ্যাসের শেল ছুড়তে থাকে ৷ এরপর ড্রোনের মাধ্যমেও টিয়ার গ্যাসের শেল নীচে ফেলা হয় বলেও অভিযোগ ৷

কৃষকদের এই মহামিছিল রুখতে সোমবার রাতে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের সঙ্গে একপ্রস্থ বৈঠক করে কৃষক সংগঠন ৷ এই বৈঠকে ছিলেন কেন্দ্রীয় কৃষি মন্ত্রী অর্জুন মুণ্ডা, কেন্দ্রীয় খাদ্য মন্ত্রী পীযূষ গোয়েল ৷ জানা যায়, এই বৈঠকে কোনও রফাসূত্র মেলেনি ৷ ন্যূনতম সহায়ক মূল্য-সহ কৃষকদের অন্য দাবিদাওয়াগুলি নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে কোনও সমঝোতায় পৌঁছতে পারেনি কৃষক সংগঠনগুলি ৷

এরপর এদিন সকালে দিল্লি চলো মিছিল করার সিদ্ধান্তই বহাল রাখে কৃষক সংগঠন ৷ ফতেহগড় সাহিব থেকে সকাল 10টা নাগাদ বহু কৃষক তাঁদের ট্র্যাক্টর ট্রলি নিয়ে দিল্লি চলো যাত্রার সূচনা করেন ৷ তাঁরা জাতীয় সড়ক দিয়ে শম্ভু সীমানা দিয়ে দিল্লির দিকে এগিয়ে আসেন ৷ ফতেহগড় সাহিব থেকে শম্ভু সীমানার দূরত্ব মাত্র 35-40 কিমি ৷ বহু মহিলা, প্রৌঢ়, প্রৌঢ়াকেও দেখা যায় মহামিছিলে যোগ দিতে ৷

হরিয়ানা সরকার আগে থাকতেই মিছিল আটকানোর সবরকম প্রস্তুতি নিয়েছিল৷ 144 ধারা জারি করা হয়েছে ৷ ব্যারিকেড, কাঁটাতার, লোহার ব্যারিকেড, কংক্রিটের স্ল্যাব দিয়ে বন্ধ করা হয়েছে পঞ্জাব-হরিয়ানা সীমানা ৷ অম্বালা, জিন্দ, ফতেহবাদ, কুরুক্ষেত্র এবং সিরসায় কংক্রিটের ব্লক, লোহার পেরেক, কাটাতাঁর দিয়ে ঘিরে দেওয়া হয় ৷ আজ সকালে একদল তরুণ ওই সীমানার দিকে এগিয়ে এলে, তাঁদের নিষেধ করা হয় ৷ এলাকাগুলিতে সংঘর্ষ মোকাবিলায় গাড়ি, ওয়াটার ক্যানন মোতায়েন করা হয়েছে ৷ ড্রোনের মাধ্যমেও চলছে নজরদারি ৷ কিষাণ মজদুর সংঘর্ষ কমিটির সাধারণ সম্পাদক সরওয়ান সিং পানধের বলেন, "দেশের সীমানাগুলি আন্তর্জাতিক সীমানায় রূপান্তরিত হয়েছে ৷ মনে হচ্ছে না এটা পঞ্জাব আর হরিয়ানা, দু'টি ভিন্ন রাজ্য ৷"

আরও পড়ুন:

  1. কাঁটাতার-কংক্রিট ও পুলিশের ব্যারিকেড, কৃষকদের 'দিল্লি চলো' মহামিছিল রুখতে তৈরি প্রশাসন
  2. কাস্তে হাতে ধান কেটে কৃষক মডেলের পক্ষে সওয়াল রাহুলের
  3. মঙ্গলে কৃষকদের প্রতিবাদ মিছিল, আজ থেকে হরিয়ানার 7টি জেলায় বন্ধ ইন্টারনেট সংযোগ
Last Updated :Feb 13, 2024, 2:27 PM IST
ETV Bharat Logo

Copyright © 2024 Ushodaya Enterprises Pvt. Ltd., All Rights Reserved.