ডাল মাখানি আর বাটার চিকেনের স্রষ্টা কে ? মীমাংসা করবে দিল্লি হাইকোর্ট

author img

By ETV Bharat Bangla Team

Published : Jan 21, 2024, 3:30 PM IST

ETV Bharat

Who invented Butter Chicken and Dal Makhani: দু'জনের নামের প্রথম অংশটি এক-কুন্দন লাল। পদবি আলাদা ৷ তাঁদের মধ্যে কে বাটার চিকেন আর ডাল মাখানির স্রষ্টা ? তা নিয়েই আইনি যুদ্ধে জড়াল দিল্লির মোতি মহল আর দারিয়াগঞ্জ রেস্তোরাঁ ৷

নয়াদিল্লি, 21 জানুয়ারি: রেস্তোরাঁয় বসে মনের সুখে বাটার চিকেন বা ডাল মাখানি বহু খেয়েছেন। কিন্তু একবারও কি প্রশ্ন জেগেছে, জিভে জল আনা এই পদ দুটি কার তৈরি ? সেই উত্তরের মীমাংসা করবে দিল্লি হাইকোর্ট ৷ ডাল মাখানি ও বাটার চিকেন নিয়ে যুদ্ধে নেমেছে দিল্লির দু'টি খ্যাতনামা রেস্তোরাঁ-মোতি মহল এবং দারিয়াগঞ্জ রেস্টুরেন্ট ৷ আগামী 29 মে এই মামলার শুনানি ৷

দিল্লির মোতি মহল রেস্তোরাঁর দাবি, তাদের পূর্বপুরুষ তথা প্রতিষ্ঠাতা কুন্দন লাল গুজরাল বাটার চিকেন রেসিপির আবিষ্কারক ৷ মোতি মহলের অভিযোগ, দারিয়াগঞ্জ রেস্তোরাঁ এই রেসিপিকে নিজেদের বলে দাবি করছে ৷ এর সূত্রপাত একটি ছবি ব্যবহারকে কেন্দ্র করে ৷ মোতি মহল তাদের ওয়েবসাইটে পেশোয়ারের একটি ছবি ব্যবহার করেছে ৷ এই ছবি দারিয়াগঞ্জ রেস্তোরাঁ ব্যবহার করতে পারে না বলে দাবি মোতি মহলের ৷ সেই জল গড়িয়েছে আদালতে ৷

মোতি মহল রেস্তারাঁটি তৈরি করেছিলেন প্রয়াত কুন্দন লাল গুজরাল ৷ তাঁর উত্তরসূরিদের দাবি, বাটার চিকেন এবং ডাল মাখানির স্রষ্টা কুন্দন লাল ৷ ব্রিটিশ শাসনাধীন পাকিস্তানের পেশোয়ারে তিনি প্রথম রেস্তোরাঁ খুলেছিলেন ৷ দেশভাগের পর তিনি ভারতে এসে নয়াদিল্লির দারিয়াগঞ্জ এলাকায় মোতি মহল নামের একটি রেস্তোরাঁ খোলেন ৷ তিনিই প্রথম বাটার চিকেন এবং ডাল মাখানি- রান্ন দু'টি করেন এবং পরে তা দেশ থেকে বিদেশেও খ্যাতি লাভ করে ৷

কীভাবে তৈরি হল মাখানি ? মোতি মহল আদালতে জানিয়েছে, কুন্দন লাল গুজরাল যখন প্রথম এই রেস্তোরাঁর ব্যবসায় আসেন, তখন রেফ্রিজারেটর ব্যবহারের চল ছিল না ৷ এদিকে দিনের শেষে বেঁচে যাওয়া মুরগি নিয়ে কী করবেন ? সেগুলি খাওয়ার যোগ্য করে রাখতে গিয়েই এই মাখানি তৈরি করে ফেলেন কুন্দন লাল ৷ টম্যাটো, মাখন, ক্রিম, মশলা দিয়ে তৈরি হয় মাখানি ৷ আর তাই দিয়ে সুস্বাদু বাটার চিকেন ৷ এতে পরের দিনও মুরগি খাওয়া যায় ৷

কী বলছে দারিয়াগঞ্জ রেস্তোরাঁ ? এদের দাবি, তাদের পূর্বপুরুষ কুন্দন লাল জগ্গিই বাটার চিকেন এবং ডাল মাখানি প্রথম তৈরি করেন, কুন্দন লাল গুজরাল নয় ৷ 1947 সালে দেশভাগের পর জগ্গি ভারতের দিল্লিতে চলে আসেন ৷ সেখানে দারিয়াগঞ্জে এলাকার নামেই একটি রেস্তোরাঁ খুলে ব্যবসা শুরু করেন ৷

আদালতে মোতি মহলের আইনজীবী সন্দীপ শেঠি দরিয়াগঞ্জের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ এনেছেন, তা পুরোপুরি খারিজ করে দিয়েছেন দারিয়াগঞ্জ রেস্তোরাঁর প্রবীণ আইনজীবী অমিত সিবাল ৷ তিনি আরও জানিয়েছেন, মোতি মহল রেস্তোরাঁ পেশোয়ারের যে ছবিটি ব্যবহার করছে, সেটি কুন্দন লাল গুজরাল এবং কুন্দন লাল জগ্গি দু'জনে মিলে তৈরি করেছিলেন ৷ আদালত পর্যবেক্ষণে জানিয়েছে, দরিয়াগঞ্জের আইনজীবীর দাবি অনুযায়ী, মোতি মহল একা ওই ছবির উপর অধিকার দাবি করতে পারে না ৷ দারিয়াগঞ্জ রেস্তোরাঁরও এই ছবির সমান অধিকার আছে ৷ ওই ছবিটি ক্রপ করায় ছবি থেকে মোতি মহল নামটি বাদ চলে গিয়েছে ৷ এরপর কী হয় তা জানতে মে মাস পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

আরও পড়ুন:

  1. মেনুতে চিকেন নেই কেন ? বরের বন্ধুদের ঝামেলায় বন্ধ হল বিয়ে
  2. খোলা স্থানে মাংস বিক্রি-ধর্মীয় স্থানে লাউড স্পিকার বাজানো নিষিদ্ধ! নির্দেশ মধ্যপ্রদেশের বিজেপি মুখ্যমন্ত্রীর
  3. টাকা নিয়ে চাকরি দেওয়া আর মায়ের মাংস খাওয়া একই জিনিস: ফিরহাদ
ETV Bharat Logo

Copyright © 2024 Ushodaya Enterprises Pvt. Ltd., All Rights Reserved.