শর্ত মানলে বিজেপিতে সব আগের মতো, ‘পদমুক্ত’ হওয়ার পর অনুপমের দাবি ঘিরে নয়া জল্পনা

author img

By ETV Bharat Bangla Team

Published : Dec 27, 2023, 12:45 PM IST

Anupam Hazra

Anupam Hazra: মঙ্গলবার সন্ধ্যায় অনুপম হাজরাকে জাতীয় সম্পাদকের পদ থেকে সরিয়ে দেয় বিজেপি ৷ তার পর সোশাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন অনুপম ৷ সেখানে তিনি দাবি করেন, শর্ত মানলে বিজেপিতে সব আগের মতো হয়ে যাবে বলে তাঁর কাছে বার্তা এসেছে ৷ যদিও এই বিজেপির কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি ৷

কলকাতা, 27 ডিসেম্বর: ‘বিদ্রোহী’ অনুপম হাজরাকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ‘পদমুক্ত’ করে দিয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি ৷ কিন্তু তার জন্য তিনি বিজেপিতে একেবারে ব্রাত্য হয়ে যাননি, জাতীয় সম্পাদকের পদ যাওয়ার পর কার্যত সেটাই বোঝানোর চেষ্টা করলেন বোলপুরের প্রাক্তন সাংসদ ৷ তাঁর দাবি, গেরুয়া শিবিরের শীর্ষ নেতৃত্বের কিছু শর্ত মেনে চললে সবকিছু আবার আগের মতো হয়ে যাবে ৷

এই নিয়ে অনুপম হাজরা সোশাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করেন ৷ সেই পোস্টে তিনি লিখেছেন, ‘‘পদ থেকে সরাবার ঠিক তিন ঘণ্টার মধ্যেই বার্তা - কিছু শর্ত মেনে চললে ‘সব আবার আগের মতো’!!! ৷’’ তাঁর এই পোস্টের পর বঙ্গ রাজনীতির অন্দরে নতুন চর্চা শুরু হয়েছে ৷ অনেকেই জানতে চান, তাহলে কি পদ থেকে সরিয়ে শুধুই অনুপমকে সমঝে দেওয়া হল যে দলই শেষকথা ? বিজেপিতে থাকতে হলে নেতৃত্বের শর্তেই চলতে হবে ?

উল্লেখ্য, 2014 সালের লোকসভা নির্বাচনের সময় বাংলার রাজনীতিতে উদয় হয় অনুপম হাজরার ৷ পেশায় অধ্যাপক অনুপম ওই বছর বোলপুর লোকসভা আসন থেকে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতীকে জিতে সাংসদ হন ৷ 2019 সালের লোকসভা নির্বাচনের আগে আচমকাই তিনি চলে যান বিজেপিতে ৷ ওই বছর যাদবপুর থেকে লোকসভা নির্বাচনে লড়েন ৷ কিন্তু হেরে যান ৷

তার পর সময় এগিয়েছে, বঙ্গে পদ্মফুলের প্রভাব বৃদ্ধি পেয়েছে ৷ শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে একাধিক কর্মসূচি করেছে বিজেপি ৷ কিন্তু অনুপমকে সেভাবে দেখা যায়নি ৷ তবে তাঁকে জাতীয় সম্পাদকের পদে রেখে দেওয়া হয় ৷ সম্প্রতি বোলপুরের রাজনীতিতে আবার সক্রিয় হতে দেখা যায় অনুপমকে ৷ আর তার পর থেকে তাঁকে ঘিরে বিতর্কের পারদ চড়তে থাকে ৷

বিশেষ করে তাঁর করা একাধিক মন্তব্য বিতর্ক বাড়িয়েছে ৷ কখনও তিনি বীরভূমে বিজেপির নেতাদের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন, আবার কখনও বিজেপির রাজ্য নেতাদের কারও কারও নাম করে বিষোদগার করেছেন ৷ ফলে তাঁকে নিয়ে ক্রমশ গেরুয়া শিবিরের অন্দরে অস্বস্তি বাড়ছিল ৷ মঙ্গলবার দিনভর কলকাতায় ছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও বিজেপির জাতীয় সভাপতি জগৎ প্রকাশ নাড্ডা ৷ দিনভর তাঁরা একাধিক সাংগঠনিক বৈঠক করেন ৷ সেই বৈঠক শেষ হয়ে যাওয়ার কিছু সময় পর জানা যায় যে অনুপমকে বিজেপি জাতীয় সম্পাদকের পদ থেকে সরিয়ে দিয়েছে ৷

রাজনৈতিক মহলের মতে, প্রকাশ্যে দলের বিরুদ্ধে কথা বলার জন্য ‘শাস্তি’ দেওয়া হল অনুপমকে ৷ তাঁকে বিজেপি একেবারে ব্রাত্য করে দিল ৷ কিন্তু সোশাল মিডিয়ায় অনুপমের পোস্টের পর পুরো বিষয়টি নিয়ে নতুন করে কাটাছেঁড়া শুরু হয়েছে ৷ অনেকেই জানতে চান, কী শর্ত দেওয়া হয়েছে অনুপমকে ? তাঁকে কি মুখে কুলুপ আঁটতে বলা হয়েছে ? রাজ্য নেতৃত্বের কথায় চলতে বলা হয়েছে ? আর অনুপম কি সেই শর্ত মেনে নেবেন ?

প্রশ্ন অনেক ৷ কিন্তু উত্তর অধরা ৷ কারণ, এই বিষয়ে বিজেপির তরফে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া দেওয়া হয়নি ৷ আবার অনুপমও তাঁর পোস্টে বিস্তারিত কিছু জানাননি ৷ রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা অবশ্য মনে করছেন, দিনকয়েকের মধ্যেই বিষয়টি স্পষ্ট হয়ে যাবে ৷

আরও পড়ুন:

  1. অনুপম হাজরাকে সর্বভারতীয় পদ থেকে অপসারণ, নাড্ডার নির্দেশে বিজ্ঞপ্তি দিল বিজেপি
  2. মোদির পথে শাহ! 24-র ভোটে আইটি সেলকেই হাতিয়ার করার নির্দেশ, বঙ্গ-বিজেপিকে বোঝালেন সোশাল মিডিয়ার গুরুত্ব
  3. বাংলায় 'সূচ্যগ্র মেদিনী'ও ছাড়তে নারাজ শাহ-নাড্ডার, রাজ্য বিজেপির কোর কমিটিতে গুরুত্ব পেলেন কারা
ETV Bharat Logo

Copyright © 2024 Ushodaya Enterprises Pvt. Ltd., All Rights Reserved.